সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

পোস্টগুলি

March, 2013 থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

যৌন মিলনে উত্তেজনা বৃদ্ধির কার্যকর কিছু কলা কৌশল

যৌন জীবনে এক ঘেয়েমির বিষয়ে অনেক পুরুষই অভিযোগ করে থাকেন । স্বামী স্ত্রী সহবাসে নানা প্রকার কারুময়্তার মাধ্যমে তাদের দাম্পত্য জীবন আনন্দময় করে রাখতে পারেন। একটা বিষয় মনে রাখা জরুরি যে - প্রতিদিন একইভাবে মিলনেও অনেক সময় অনেক নারী পুরুষের যৌন উত্তেজনা হ্রাসের ব্যাপারে ভূমিকা রাখতে পারে। স্বামী স্ত্রী তাদের সহবাসে বৈচিত্রতা এনে অনায়াসেই উত্তেজনা সৃষ্টি যৌন জীবনে এক ঘেয়েমির দূর করতে পারেন। আসুন এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেই।
মুখোমুখি :- নারীকে শুয়ে পুরুষ কিংবা পুরুষকে শুইয়ে নারী পরস্পর পরস্পরের দিকে যৌনতার দৃষ্টিতে চেয়ে থাকলে নারী-পুরুষ উভয়ের উত্তেজনা বেড়ে যায়।
নারী উপরে :- এই অবস্থায় পুরুষের লিঙ্গ নারীর যোনিতে ৪৫ ডিগ্রি এ্যাঙ্গেলে প্রবেশ করাবে নারী এবং নারী পুরুষের অনুত্থিত লিঙ্গকে হাত দিয়ে নাড়াচাড়া করে একে সুদৃঢ় করে তুলবে। সে তার স্তন, ভগাঙ্কুর এবং পশ্চাৎপ্রদেশের ব্যবহারে পুরুষকে উত্তেজিত করে তুলবে। এতে করেও যদি পুরুষাঙ্গ উত্থিত না হয় তবে একইভাবে পুনর্বার দেখা যেতে পারে।
পুরো শরীর :- জিহ্বা এবং হাতের আঙ্গুল যৌন উত্তেজনা বাড়াতে পারে। নারীর যোনিমুখের পাতলা আবরণ এবং ক্লাইটোরিস ব…

নারী-পুরুষের যৌনবাহিত রোগসমূহ নির্মূলে হোমিওপ্যাথি

সমস্ত পৃথিবীতেই মানুষ নানা প্রকার জটিল এবং কঠিন যৌনবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। এই রোগগুলি যে শুধু তীব্র কষ্টদায়ক তাই নয় যথাযথ জ্ঞানের অভাবে এইগুলির সুচিকিত্সা থেকেও বঞ্চিত হন অনেক ভুক্তভোগী। নারী পুরুষের যৌন সংক্রান্ত নানা প্রকার রোগসমূহ সম্পর্কে কিছুটা ধারণা থাকলেও অন্তত এ বিষয়ে খুব সহজেই সতর্ক থাকা যাবে। আসুন এই সংক্রান্ত কিছু রোগ-ব্যাধি সম্পর্কে জেনে নেই।

গনোরিয়া :- যৌন বাহিত এই রোগটি নাইজেরিয়া গনোরি নামক একপ্রকার ব্যকটেরিয়ার কারনে হয়। আক্রান্ত ব্যক্তির সাথে মিলনের ৮-১০ দিন পর এই রোগের লক্ষন গুলো দৃষ্টিগোচর হয়। পুরুষের যৌনাংগ দিয়ে পুজ (Pus) বের হওয়া, প্রসাবে জ্বালাপোড়া এই রোগের উপসর্গ। মহিলাদের যোনিপথ, মূত্রনালী ও গুহ্যদারে এই রোগ হয়। যদিও অনেক মহিলার ক্ষেত্রেই রোগটি কোনো লক্ষন প্রকাশ করেনা তবে প্রসাবে জ্বালাপোড়া, যোনিপথে স্রাব আসা এসব উপসর্গ নিয়ে অধিকাংশ রোগী চিকিৎসকের দারপ্রান্তে উপস্থিত হয় । সমকামীরা এই রোগে গুহ্যদারে আক্রান্ত হয়।
যৌনাংগ থেকে নিঃসৃত নির্যাস বা পুজ থেকে স্মেয়ার (Smear) বা স্লাইড তৈরী করে অথবা কালচার (Culture) করেও এর জীবানু সনাক্ত করা হয়। অভিজ…

পুরুষের যৌন দূর্বলতা, লিঙ্গোত্থান সমস্যা নির্মূলে কার্যকর চিকিত্সা

যৌন দূর্বলতায় নারী বা পুরুষ উভয়েই আক্রান্ত হতে পারে তবে যৌন কার্যে নারীর ভূমিকা অনেক খানি পরোক্ষ বিধায় পুরুষকেই এই সমস্যা নিয়ে বেশী উদবিগ্ন হতে দেখা দেয় । আপনি হয়তো লক্ষ্য করে থাকবেন যে, পরিণত বয়সে অনেক নারী-পুরুষের কাছে যে সমস্যাটা অনেক সময় প্রকট হয়ে উঠে তা হলো যৌন দূর্বলতা, যার কারণে অনেক সময়ই দম্পতি মানসিক অশান্তিতে ভোগেন।

অনেক অবিবাহিত এমনকি যৌন ক্রিয়ায় অংশ গ্রহন করেনি এমন তরুণ-যুবকদের পর্যন্ত এই সমস্যা নিয়ে চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হতে দেখা যায় । বস্তুত আমাদের সমাজে অধিকাংশ মানুষেরই এ বিষয়ে সংকোচ বেশি থাকায় প্রকৃত তথ্য থেকে সঠিক সময়ে বঞ্চিত হন, তেমনি অনেক অপসংস্কার বা কুসংস্কার এই দূর্বলতার কারণে সমাজে বাসা বেধে আছে। নারী পুরুষ মিলিয়ে এ ধরণের রোগীর সংখ্যা শতকরা ১০ থেকে ২০ শতাংশ। কিন্তু শুধু আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে এর সংখ্যা যে আরো বেশি সেটা আপনি হয়তো নিজেই বুঝতে পরেছেন। একটু ভেবে দেখলে বুঝা যাবে এটা মোটেই ফেলে দেবার মতো কোনো সংখ্যা নয়।
প্রথমে পুরুষের ব্যধি নিয়ে আলাপ করা যাক। এজন্য প্রথমেই জেনে নিতে হবে একজন পুরুষের যৌন বিষয়ক শারীরবৃত্তীয় কাজ গুলো কি কি। যৌন ইচ্ছা …

পুরুষের দ্রুত বীর্যপাতের কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার

দ্রুত বীর্যপাতকে ইংরেজিতে প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন বলা হয়ে থাকে । মাঝে মধ্যে অনেক পুরুষ যৌনমিলনের সময় নিজেদের অথবা তাদের যৌনসঙ্গিনীর চাহিদার তুলনায় দ্রুত বীর্যপাত করে ফেলেন। যদি এটা কদাচিৎ ঘটে তাহলে তেমন সতর্ক হওয়ার কারণ নেই। কিন্তু যদি নিয়মিত আপনার ও আপনার সঙ্গিনীর ইচ্ছার চেয়ে দ্রুত বীর্যপাত ঘটে অর্থাৎ যৌনসঙ্গম শুরু করার আগেই কিংবা যৌনসঙ্গম শুরুর একটু পরে আপনার বীর্যপাত ঘটে যায় - তাহলে বুঝতে হবে আপনার যে সমস্যাটি হচ্ছে তার নাম দ্রুত বীর্যপাত বা  প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন।

এ ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে অভিজ্ঞ একজন হোমিও চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। পুরুষের দ্রুত বীর্যপাত বা প্রি-ম্যাচিউর ইজাকুলেশন একটি সাধারণ যৌনগত সমস্যা। পরিসংখ্যানে ভিন্নতা রয়েছে। তবে কিছু বিশেষজ্ঞের মতে, প্রতি তিনজন পুরুষের মধ্যে একজন এ সমস্যায় আক্রান্ত হন। যদিও এটি একটি সাধারণ সমস্যা, যার সফল এবং সর্বাধিক কার্যকর চিকিৎসা রয়েছে আধুনিক হোমিওপ্যাথিতে । কিন্তু অনেক পুরুষ এ বিষয়ে তাদের চিকিৎসকের সাথে কথা বলতে কিংবা চিকিৎসা নিতে সঙ্কোচ বোধ করেন, এটাই হলো তাদের একটা সমস্যা। অথচ যথাযথ হোমিও ট্রিটমেন্ট নিলে অল্প কিছু দিন…

যৌন মিলনে পুরুষের স্থায়ীত্ব কত মিনিট হওয়া দরকার

অনেক তরুনদের মনেই এই প্রশ্নটা থাকে যে - যৌন মিলনে পুরুষের স্থায়ীত্ব কতটুকু হলে ভালো হয় অর্থাৎ বেস্ট সেক্স এর সময়কাল সাধারনত কত মিনিট হয়ে হবে। বস্তুত যৌন মিলনে পুরুষের স্থায়ীত্ব নিয়ে ধরা-বাধা কোন সময়কাল থাকে না। তবে এ সংক্রান্ত অনেক গবেষণা লব্ধ তথ্য এবং উপাত্ত রয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষজ্ঞরা এক সমীক্ষাতে জানিয়েছেন বেস্ট সেক্সুয়াল ইন্টারকোর্স ৭-১৩ মিনিটের মধ্যে হয়৷ সমীক্ষা বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছে সাধারণত ৩ মিনিটের সেক্স পর্যাপ্ত সময় হয়৷ এই সমীক্ষা করা হয়েছিল পেনিট্রেটিব সেক্সের জন্য আদর্শ সময় কি এটা বার করার জন্য৷ আমেরিকা ও কানাডার লোকেদের উপর সমীক্ষাতে রায় পাওয়া গেছে ৭-১৩ মিনিটের মত সময় সবচেয়ে বাঞ্ছনীয় হয়৷ সমীক্ষাতে আরও জানা গেছে ইন্টারকোর্স চলার সময় ৩-৭ মিনিট আদর্শ৷ সেক্সের জন্য এর থেকে কম সময়কে 'সবচেয়ে কম সময়' ও ১৩ মিনিটের অধিক সময়কে 'বেশি লম্বা' বলা হয়েছে৷ এই সমীক্ষা 'শান্ত স্বভাবের' জুটির পক্ষে আদর্শ যারা বুঝতে পারে স্বাস্থ্যকর সেক্স অনেকক্ষণ সময় ধরেই চলা উচিত৷
এই সমীক্ষাতে আরও জানা গেছে বেশিরভাগ অস্ট্রেলিয়ার পুরুষরা সেক্সের জন্য…

নারীদের যৌন উত্তেজনা এবং তৃপ্তির লক্ষণ

সহবাসে নারীদের কিভাবে উত্তেজিত করা যায় এ সংক্রান্ত অনেক আর্টিকেল রয়েছে। নারীকে যৌন মিলনে জাগিয়ে তোলার জন্য পুরুষদের কিছু কলাকৌশল অবলম্বন করা ভালো। তাতে তারা দ্রুত মিলনের জন্য প্রস্তত হয়। এখানে এ সংক্রান্ত কিছু টিপস দেয়া হলো :-

মিলনের সময় নারীদের মুখ, কপাল, গাল ইত্যাদি স্থানে ঘন ঘন চুম্বন করা ও ধীরে ধীরে ঘর্ষণ করা।সঙ্গমের পূর্বে নারী দেহের বিভিন্ন স্থান স্পর্শ করলে, ধীরে ধীরে নাড়াচাড়া করলে কাম উত্তেজনা জাগে। নারীর যৌন ইন্দ্রয়গুলি স্পর্শ, ঘর্ষণ ও মর্দন করা উচিত। বিশেষ করে স্তন ও ভগাঙ্কুর মর্দন কাম উত্তেজনার সহায়ক। প্রয়োজন হ’লে ধীরে ধীরে আঘাতকরা, দংশন করা বা নিপীড়ন করা চলে। সহবাসের আগে উপরোক্ত বিষয়ে স্ত্রীকে ভালভাবে উত্তেজিত কারা একান্ত আবশ্যক-অন্যথায় স্ত্রীর অতৃপ্তি থেকে যেতে পারে। নারীর উত্তেজনার লক্ষণ :- নারী উত্তেজিত হ’লে তার কি কি লক্ষণ পেতে পারে সেগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো - নারী উত্তেজিত হ’য়ে পড়লে এবংকামবিহ্বল হলে তার দু’টি চোখ অর্দ্ধনিমীলিত ও রক্তবর্ণ ধারণকরে। জোরে জোরে নিশ্বাস পড়তে থাকে। চেহারার মধ্যে উত্তেজনার ভাব স্পষ্ট ফুটে ওঠে। হাত পা শিথিল হ’য়ে পড়ে। চোখ বুজে থ…