সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

পোস্টগুলি

March, 2014 থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

শতকরা ৮০ ভাগ পুরুষ যৌনতায় দূর্বল, অন্যায় বীর্যপাত থেকে বিরত থাকুন

দেখা যায় যখন থেকে লিংগ উত্থিত হয় তখন থেকেই কারো কোন প্রড়োচনা ছাড়াই অনেক ছেলেরা হস্তমৈথুন করে থাকে। (হস্তমৈথুন হচ্ছে হাতদিয়ে বা অন্যকোন ভাবে লিংগকে উত্তেজিত করে বীর্যপাত করা) কেউ দিনে একাধিকবার এই কুকর্মটি করে থাকে। অশালীন ছবি, ব্লু ফিল্ম দেখে লিংগ উত্তেজিত করে অন্যায় বীর্যপাত এখন অহরহ ঘটনা। কিন্তু এ ঘটনা আর এক সময় দুর্ঘটনায় পরিনত হয়, করো বেলায় দারুন স্বাস্থ্যহানী হয়। আর সবার বেলায় যেটা হয়, দীর্ঘদিন হস্তমৈথুনের ফলে বিবাহের পর স্ত্রীর কাছে লজ্জিত হতে হয়। একজন সবল পুরুষ যেখানে ৭ থেকে ৮ মিনিট সময় রতিকৃয়া করতে পারার কথা সেখানে হস্ত মৈথনে অভ্যস্ত দূর্বল পুরুষ ১ থেকে ২ মিনিটেই তার সঙ্গীকে না তৃপ্ত করে হাপিয়ে উঠে।
অনেককে হস্তমৈথুনের পক্ষে বলতে শোনা যায় .. কিন্তু সর্বসম্মতি ক্রমে হস্তমৈথুন যে বয়সন্ধি কালের যৌনশক্তি গ্রাসী অভ্যাস সেটা পৃথীবির সকল মেডিকেল সাইন্টিস্টরাই শিকার করেন। ইসলাম ধর্মে হস্তমৈথুন একটি কবিরা গুনাহ্‌। কুচিন্তা, মেয়েদের সাথে মেলামেশা না করা, নিয়মিত খেলাধূলা করা আর সর্বপরি নামজ পড়া ও ধর্মীয় অনুশাষন মেনে চলা ও চোখের হেফাজতই হস্তমৈথুন থেকে বাচার  পথ। তার…

দাম্পত্য জীবনে যৌনতায় ফিট থাকতে যে খাবারগুলি সুফলদায়ক

সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালো বোঝাপড়া থাকার পাশাপাশি দরকার সুখী ও স্বাস্থ্যকর যৌন জীবন।প্রায়ই দেখা যায় যৌন সমস্যার কারনে সংসারে অশান্তি হয়, এমনকি বিচ্ছেদ পর্যন্ত হয়। কিন্তু যৌন স্বাস্থ্যে সমস্যা থাকলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় যৌন সমস্যা নিয়ে লজ্জায় কেউ আলোচনা করে না। প্রকৃতিতেই লুকিয়ে আছে যৌন স্বাস্থ্য সমস্যার অনেক সমাধান। প্রতিদিন খাবার তালিকায় কিছু পরিবর্তন নিয়ে এলেই স্বাস্থ্যকর যৌন জীবন লাভ করা সম্ভব। আসুন জেনে নেই যৌন স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী এমন কিছু খাবারের কথা।

পালং শাক ও অন্যান্য সবজি :- পালং শাকে আছে প্রচুর পরিমাণ ম্যাগনেসিয়াম। ম্যাগনেসিয়াম শরীরে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে। জাপানের গবেষকদের মতে শরীরে রক্ত চলাচল বাড়লে যৌন উদ্দীপনাও বাড়ে। পালং শাক ও অন্যান্য বিভিন্ন রকম শাক,ব্রকলি, লেটুস, ফুলকপি, বাঁধাকপি এগুলোতে রয়েছে ফলেট, ভিটামিন বি সহ অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এগুলো সুস্থ যৌন জীবনের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় কিছু উপাদান।
চিনি ছাড়া চা :- প্রতিদিন দুধ-চিনি ছাড়া চা পান করলে শরীরে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাওয়া যায়। চা ব্রেইন কে সচল করে…

যৌন মিলন বা সহবাসের ক্ষেত্রে পুরুষদের যে ভুলগুলি করা উচিত নয় !

বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় আমাদের দেশের পুরুষরা দৈহিক মিলনের সময় স্ত্রীদের আনন্দ দেওয়ার চেয়ে তাদেরকে ভোগ করতেই বেশি আগ্রহী থাকে। পুরুষদের এই রাক্ষুসে মনোভাবের কারনেই অনেক সময় দেখা যায় যে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে ব্যর্থ হয়। এই সমস্যার মূল কারন হল, দৈহিক মিলন এবং মেয়েদের যৌন ইচ্ছা-আকাঙ্খা সম্পর্কে ছেলেদের স্বচ্ছ ধারনার অভাব। আজ আমরা এই বিষয়ে কিছু জানব।

প্রথমে চুম্বন না করা :- দৈহিক মিলনের শুরুতেই সঙ্গিনীকে আদরেরসাথে চুম্বন না করে যৌনকাতর স্থানগুলোতে চলে গেলে তার ধারনা হতে পারে যে আপনি তাকে প্রকৃত ভালোবাসেন না, শুধুমাত্র দৈহিক চাহিদা মেটাতেই তার কাছে এসেছেন। গভীরভাবে ভালোবেসে সঙ্গিনীকে চুম্বন দেওয়া দুজনেরজন্যই প্রকৃতপক্ষে এক অসাধরণ যৌনানন্দময় মিলনের সূচনা করে।

প্রথম থেকেই বক্ষ নিয়ে মেতে ওঠা :- বেশীরভাগ সময়ই দেখা যায় পুরুষরা সঙ্গিনীর বক্ষ নিয়ে মেতে ওঠে। প্রায় সব মেয়েই চূড়ান্ত উত্তেজিত হওয়ার আগে এরকম করলে বেশ ব্যথা পায়। তাই প্রথমে নিজের উত্তেজনাকে একটু দমিয়ে রেখে হলেও ধীরে ধীরে অগ্রসর হওয়া উচিত।
একটু থেমে বিশ্রাম নেওয়া :- পুরুষরা যেমন চরম উত্তেজনার পথে সামান্য সময়ের …

নারীদের জরায়ুর ফাইব্রয়েড টিউমারের কার্যকর চিকিৎসা

মহিলাদের প্রজননক্ষম বয়সে জরায়ুতে সবচেয়ে বেশি যে টিউমারটি হতে দেখা যায় তা হলো ফাইব্রয়েড বা মায়োমা। জরায়ুর পেশির অতিরিক্ত ও অস্বাভাবিক বৃদ্ধির ফলে এই টিউমারের সৃষ্টি হয়। ৩০ বছরের ঊর্ধ্বে নারীদের মধ্যে ২০ শতাংশই এই সমস্যায় আক্রান্ত। ফাইব্রয়েড এক ধরনের নিরীহ টিউমার, এটি ক্যানসার বা বিপজ্জনক কিছু নয়। তবে দুটো সমস্যার কারণে এর সুচিকিৎসা দরকার।
০১. এর ফলে অতিরিক্ত মাসিক হওয়া এবং তার জন্য রক্তশূন্যতা হতে পারে।
০২. এটিকে বন্ধ্যাত্বের একটি অন্যতম কারণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এ ধারণা সব সময় সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য না-ও হতে পারে। কেননা ২৫ শতাংশ ফাইব্রয়েড টিউমার আজীবন কোনো সমস্যাই করে না। মোটামুটি বেশির ভাগ ক্ষেত্রে কমবেশি অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ বা অনিয়মিত মাসিক বা তলপেট ভারী বোধ হওয়া ইত্যাদি উপসর্গ হয়।  ২৭ থেকে ৪০ শতাংশ ক্ষেত্রেই কেবল এটি বন্ধ্যাত্বের কারণ হয়ে উঠতে পারে, যদি নিচের ঘটনাগুলো ঘটে: যদি ফাইব্রয়েডের কারণে জরায়ু অতিরিক্ত বড় হয়ে যায়। জরায়ুর ভেতরের দেয়ালে রক্তনালির সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ভ্রূণ ঠিকমতো বেড়ে উঠতে পারে না। জরায়ু ও ফ্যালোপিয়ান টিউবের সংযোগস্থলে বা এমন কোনো জায়গায় টিউমারটির…