সর্বশেষ আপডেট
অপেক্ষা করুন...
সোমবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৪

মূত্রগ্রন্থি দ্বারা যে সকল দূষিত পদার্থ সুস্থাবস্থায় শরীর হতে বের হয়ে থাকে তা যদি মূত্রের সঙ্গে নির্গত না হয়ে রক্তের মধ্যে সঞ্চালিত হয় তবে ইহাকে মূত্রনাশ বিকার বা ইউরিমিয়া (Uraemia or Uremia) বলা হয়। ইহাতে প্রস্রাব বা মূত্র রোধ এবং রক্ত দুষ্টির কতগুলো উপসর্গ ঘটে। এই উপসর্গগুলি ধীরে ধীরে অথবা হঠাৎ আবির্ভূত হতে পারে এবং রোগীকে সংকটজনক অবস্থায় ফেলতে পারে। তাই রোগের উপসর্গ প্রকাশ পাওয়া মাত্রই রেজিস্টার্ড একজন হোমিও ডাক্তারের শ্মরনাপন্ন হওয়া উচিত।

এই জাতীয় রোগে আক্রান্ত রোগীর মধ্যে কতগুলো বিশেষ লক্ষণ প্রকাশ পায় যেমন - মূত্ররোধ, মূত্র সল্পতা, শোথ, বমন, বমন ইচ্ছা, ভয়ংকর মাথার যন্ত্রণা, মাথা ঘোরা, প্রবল আক্ষেপ আবার কখনো বা প্রলাপসহ আচ্ছন্নভাব অচেতন নিদ্রা অর্থাৎ কমা দেখা দেয়। তাই সকল লক্ষণের সাথে শ্বাস কস্ট, নিঃশ্বাসের সঙ্গে হিস হিস শব্দ, শ্বাসে এমোনিয়ার মত গন্ধ প্রভৃতি লক্ষণও বর্তমান থাকে।

কোন কোন ক্ষেত্রে এই রোগের সঙ্গে পরিপাক ক্রিয়ার গোলযোগ থাকতে পারে। বলতে গেলে এটি অতি ভয়ঙ্কর প্রকৃতির রোগ বিশেষ। রোগীর মুখমন্ডল মলিন এবং কমল দেখায়। নাড়ী দ্রুত চলতে থাকে। শরীরের উষ্ণতা প্রথমে বর্ধিত হয় পরে ধীরে ধীরে কমতে থাকে এবং স্বাভাবিক তাপমাত্রার চেয়েও কমে যায়। অনেক সময় এটি বিপদজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। তাই যথাসময়ে প্রপার হোমিও ট্রিটমেন্ট নেয়া জরুরি।
আধুনিক হোমিওপ্যাথি, ঢাকা
ডাক্তার হাসান; ডি. এইচ. এম. এস(BHMC)
যৌন ও স্ত্রীরোগ, লিভার, কিডনি ও পাইলসরোগ বিশেষজ্ঞ হোমিওপ্যাথ
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪, বাংলাদেশ
ফোন :- +88 01727-382671 এবং +88 01922-437435
স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্য যেকোন সময় নির্দিধায় এবং নিঃসংকোচে যোগাযোগ করুন।

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
[X]