সর্বশেষ আপডেট
অপেক্ষা করুন...
শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

গত এক দু' দশকে প্রযুক্তি যে ক্ষেত্রে আমুল পরিবর্তন এনে দিয়েছে তা হল ব্যাঙ্কিং। এটিএম তো রয়েইছে, সঙ্গে ইন্টারনেট, মোবাইল প্রভৃতির মাধ্যমেও যে কোনও জায়গা থেকে ব্যাঙ্কের যাবতীয় কাজ করে ফেলা যাচ্ছে অনায়াসে। তবে অনেক সময়ই প্রযুক্তির বাজে দিকটার ঝক্কিও সামলাতে হয় আমাদের। ধরুন, খুব প্রয়োজনে টাকা তুলতে এটিএম গেলেন। টাকা তোলার জন্য প্রয়োজনীয় ট্রান্স্যাকশনও সম্পূর্ণ হল, টাকা কেটে নেওয়ার এসএমএস-ও পেলেন, কিন্তু টাকা মেশিনেই রয়ে গেল। এ ক্ষেত্রে কী কী করণীয় দেখে নিন এক নজরে।

১) নিজের ব্যাঙ্কে গিয়ে অভিযোগ জানান: আপনি যে কোনও ব্যাঙ্কের এটিএম ব্যবহার করতে পারেন, তবে টাকা না বেরলে আপনার নিজের ব্যাঙ্কেই অভিযোগ জানাতে যেতে হবে। যদি ব্যাঙ্কিং সময়ের মধ্যে থাকে তবে ভালো, না হলে পরের দিন গিয়ে যে কোনও শাখায় অভিযোগ জানান।
২) RBI-এর নির্দেশ: ২০১১ সালে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া একটি নির্দেশিকা জারি করে, এটিএম বিভ্রাটে যদি কোনও গ্রাহক এ রকম অসুবিধায় পড়েন, সে ক্ষেত্রে ৭ দিনের মধ্যে সেই টাকা তাঁকে ফেরত দিতে হবে। আগে এই মেয়াদ ছিল ১২ দিনের। যদি ৭ দিনের মধ্যে সে টাকা ফেরত না আসে, তবে প্রতি দিন দেরি হওয়ার জন্য ১০০ টাকা করে জরিমানা দিতে হবে সংশ্লিষ্ট গ্রাহককে। নির্দেশকায় আরও বলা রয়েছে, যদি গ্রাহক নিজে থেকে অভিযোগ না করে সে ক্ষেত্রেও এটা ব্যাঙ্কের দায়িত্ব যে গ্রাহককে জরিমানা দিতে হবে।

৩) ৩০ দিনের মধ্যে করতে হবে অভিযোগ: যদি ব্যাঙ্কের ভরসায় থেকে আপনি ৩০ দিন পর্যন্ত অভিযোগ না জানান, সে ক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক আপনাকে জরিমানার অর্থ দেবে না। তাই এটিএম বিভ্রাটের শিকার হলে, যত দ্রুত সম্ভব কাছাকাছি আপনার ব্যাঙ্কের কোনও শাখায় গিয়ে অভিযোগ জানান।
আধুনিক হোমিওপ্যাথি, ঢাকা
ডাক্তার হাসান; ডি. এইচ. এম. এস(BHMC)
যৌন ও স্ত্রীরোগ, লিভার, কিডনি ও পাইলসরোগ বিশেষজ্ঞ হোমিওপ্যাথ
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪, বাংলাদেশ
ফোন :- +88 01727-382671 এবং +88 01922-437435
স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্য যেকোন সময় নির্দিধায় এবং নিঃসংকোচে যোগাযোগ করুন।

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
[X]