সর্বশেষ আপডেট
অপেক্ষা করুন...
রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

বাংলাদেশে বহুল প্রচলিত একটি প্রবাদ হলো, ‘মাছে-ভাতে বাঙালি’। কিন্তু বাংলাদেশিদের ছাড়িয়ে গেছে এখন চীন। ভাত খাওয়ায় এখন চীনই শীর্ষে। শুধু বাংলাদেশই নয়, ভারতকেও পেছনে ফেলে দিয়েছে চীন। বিশ্ব অর্থনীতির পরিসংখ্যান ও প্রবণতা নিয়ে দ্য ইকোনমিস্টে-র ‘ওয়ার্ল্ড ইন ফিগার’ ওয়েবসাইটে এমন তথ্যই মিলেছে। গত ২০১৩-১৪ অর্থবছরের পরিসংখ্যান দিয়ে ভাত খাওয়ায় এগিয়ে থাকা দেশের তালিকাটি করেছে ইকোনমিস্ট। চীনের মানুষ ২০১৩-১৪ অর্থবছরে মোট ১৪ কোটি ৬৩ লাখ কোটি টন চালের ভাত খেয়েছে। পরের অবস্থানে আছে ভারত।

দেশটির মানুষ খেয়েছে ৯ কোটি ৯১ লাখ ৮০ হাজার টন চালের ভাত। ৩৮ কোটি ৫০ লাখ টন চালের ভাত খেয়ে তৃতীয় অবস্থানে আছে ইন্দোনেশিয়ার মানুষ। আর চতুর্থ বাংলাদেশ। এ দেশের মানুষ ৩ কোটি ৪৯ লাখ টন চালের ভাত খেয়েছে আলোচ্য বছরে। চীনের এগিয়ে থাকার একটি কারণ হচ্ছে, তাদের লোকসংখ্যা বেশি। ২০১৪ সালের তথ্য অনুযায়ী ইকোনমিস্ট বলছে, দেশটির জনসংখ্যা ১৪০ কোটি। ভারতের আছে ১৩০ কোটি।
আর বাংলাদেশের ১৫ কোটি ৮৮ লাখ। তবে মোট জনসংখ্যার হিসাবে বাংলাদেশিরা পিছিয়ে থাকলেও মাথাপিছু ভাত খাওয়ার হিসাবে কিন্তু চীনাদের চেয়ে বাংলাদেশিরাই এগিয়ে রয়েছে। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে একজন বাংলাদেশি গড়ে ভাত খেয়েছেন ২১৭ কেজি চালের। ইন্দোনেশিয়ার মানুষের বেলায় এ পরিমাণ ১৫১ কেজি চাল। আর চীনারা খেয়েছে ১০৪ কেজি চালের ভাত। ভারতীয়রা সবচেয়ে কম, মাত্র ৭৬ কেজি চাল!
আধুনিক হোমিওপ্যাথি, ঢাকা
ডাক্তার হাসান; ডি. এইচ. এম. এস(BHMC)
যৌন ও স্ত্রীরোগ, লিভার, কিডনি ও পাইলসরোগ বিশেষজ্ঞ হোমিওপ্যাথ
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪, বাংলাদেশ
ফোন :- +88 01727-382671 এবং +88 01922-437435
স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্য যেকোন সময় নির্দিধায় এবং নিঃসংকোচে যোগাযোগ করুন।

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
[X]