সর্বশেষ আপডেট
অপেক্ষা করুন...
মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল, ২০১৬

কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়রিয়া প্রতিরোধ ও দূরীকরণে ইসুবগুলের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। গরমে ও হজমের সমস্যার ঘরোয়া চিকিৎসা ও প্রতিকারের জন্য ইসুবগুল বেশ উপকারী। অনেক ধরনের উপকারিতা রয়েছে এই সাদা ভুষিটির।

আশ্চর্যজনক হলেও সত্য ইসুবগুল ডায়রিয়া ও কোষ্ঠকাঠিন্য দুটিই প্রতিরোধ করে। ডায়রিয়া প্রতিরোধে দুই চামচ ইসুবগুলের সাথে তিনচামচ টাটকা দই মিশিয়ে খান। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে দুইচামচ ইসুবগুল এক গ্লাস কুসুম গরম দুধের সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন ঘুমাতে যাবার আগে খেলে বেশ কার্যকরী ফলাফল পাওয়া সম্ভব।

অ্যাসিডিটির ঘরোয়া প্রতিকার হতে পারে ইসুবগুল। এটি সঠিক হজমের জন্য এবং পাকস্থলীর বিভিন্ন এসিড নিঃসরণে সাহায্য করে। অ্যাসিডিটির মাত্রা কমাতে প্রতিবার খাবার পর দুইচামচ ইসুবগুল আধা গ্লাস ঠাণ্ডা দুধে মিশিয়ে খান।
ইসুবগুল ওজন কমাতেও সাহায্য করবে। এটি দীর্ঘসময় পেট ভরা অনুভূত হয়। কুসুম গরম পানিতে দুই চামচ ইসুবগুল ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে নিয়ে সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে খেলে তা ওজন কমাবে।

উচ্চআঁশ সমৃদ্ধ এবং কম ক্যালরিযুক্ত হওয়ায় ইসুবগুল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে হৃদরোগ থেকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করে। তাই হার্টকে সুস্থ রাখতে নিয়মিতভাবে খাবারের ঠিক পরে বা সকালে ঘুম থেকে উঠে ইসুবগুল খান।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ইসুবগুল খুবই ভালো। এটি পাকস্থলীতে যখন জেলির মত একটি পদার্থে রূপ নেয় তখন তা গ্লুকোজের ভাঙ্গন ও শোষণের গতিকে ধীর করে। ফলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে থাকে।

প্রাকৃতিক ভাবে দ্রবণীয় ও অদ্রবণীয় খাদ্যআঁশে ভরপুর ইসুবগুল যারা পাইলসের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্যও উপকারী।
আধুনিক হোমিওপ্যাথি, ঢাকা
ডাক্তার হাসান; ডি. এইচ. এম. এস(BHMC)
যৌন ও স্ত্রীরোগ, লিভার, কিডনি ও পাইলসরোগ বিশেষজ্ঞ হোমিওপ্যাথ
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪, বাংলাদেশ
ফোন :- +88 01727-382671 এবং +88 01922-437435
স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্য যেকোন সময় নির্দিধায় এবং নিঃসংকোচে যোগাযোগ করুন।

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
[X]