সর্বশেষ আপডেট
অপেক্ষা করুন...
সোমবার, ২০ জুন, ২০১৬

ইংরেজি ‘Liver’ শব্দটির বাংলা অর্থ ‘যকৃত’ তবে আমরা একে লিভার বললেই বেশি চিনি। মেরুদণ্ডী ও অন্যান্য কিছু প্রাণীদেহের এই অঙ্গটি প্রাণীদেহের বিপাকে ও অন্যান্য কিছু শারীরিক কাজে প্রধান ভূমিকা পালন করে। গ্লাইকোজেনের সঞ্চয়, প্লাজমা প্রোটিন সংশ্লেষণ, ওষুধ বা অন্যান্য রাসায়নিক নির্বিষকরণে এর ভূমিকা অপরিহার্য।

লিভার দেহের বৃহত্তম গ্রন্থি। এটি মধ্যচ্ছদার নিচের অংশে অবস্থিত। যকৃতে পিত্ত উৎপন্ন হয়, পিত্ত একধরনের ক্ষারীয় যৌগ যা পরিপাকে সহায়তা করে, বিশেষত স্নেহজাতীয় খাদ্যের ইমালসিফিকেশন। এছাড়াও লিভার দেহের আরও বিভিন্ন জৈব-রাসায়নিক প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। লিভার ২টি খন্ডে বিভক্ত,ডান এবং বাম।
লিভারের ওজনের পাঁচ থেকে দশ ভাগের বেশি চর্বি দিয়ে পূরণ হলে যে রোগটি হয় তাকে ফ্যাটি লিভার বলে। লিভারে জমা চর্বি অনেক সময় স্থানীয় প্রদাহ সৃষ্টি করে এবং এ প্রদাহ থেকে কিছুসংখ্যক রোগীর লিভার সিরোসিস, এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে লিভার ক্যান্সারও হতে পারে। প্রাথমিক অবস্থায় এই রোগের কোনো উপসর্গ থাকে না, অন্য রোগের পরীক্ষা করার সময় সাধারণত রোগটি ধরা পড়ে। কখনো কখনো পেটের উপরিভাগের ডানদিকে ব্যাথা,অবসন্নতা, ক্ষুধামান্দ্য ইত্যাদি উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

চলুন জেনে নেই লিভার ভালো রাখার কিছু উপায়:
১। মদ্যপান হতে বিরত থাকুন কারণ যেকোনো রোগীরই অ্যালকোহল থেকে দূরে থাকাটা অত্যন্ত জরুরি। অ্যালকোহল নিজেই অ্যালকোহলিক লিভার সিরোসিস তৈরি করতে পারে। পাশাপাশি যাঁরা অ্যালকোহল গ্রহণ করেন তাঁদের লিভার অ্যাবসেস বা লিভারে ফোড়া হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। গবেষণায় এও দেখা গেছে যে অ্যালকোহল গ্রহণ করলে হেপাটাইটিস ‘সি’ ভাইরাসজনিত লিভার রোগের মাত্রাও অনেক বৃদ্ধি পায়। পশ্চিমা বিশ্বে সাধারণত মদ্যপানের কারণে ফ্যাটি লিভার হয়ে থাকে।

২। শর্করা জাতীয় খাবার কম খান শর্করা জাতীয় খাদ্যের আধিক্য লিভারের মারাত্মক ক্ষতি করে, তাই অধিক শর্করা জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে চেষ্টা করুণ। ডায়াবেটিক হলে লিভার মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে থাকে।

৩। নিয়মিত ব্যায়াম করুণ। যেমন হাঁটাহাঁটি, সাতার কাটা ও যোগ ব্যায়াম ইত্যাদি।

চর্বির জাতীয় খাবার পরিহার করুণ: রক্তে চর্বির আধিক্য লিভারের রোগের প্রধান কারণ।তাই যথাসাধ্য চর্বি জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন।
৪। ব্লাডপ্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখুন। কারণ, উচ্চ রক্তচাপ লিভারের কার্যক্ষমতায় বাধা প্রদান করে।

৫। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। কারণ স্থূলতা লিভারে চর্বি জমতে সাহায্য করে। ফ্যাটি লিভারই এখন এ দেশে ক্রনিক লিভার ডিজিজের প্রধান কারণ। –সূত্র: এভ্রিডে হেলথ।
আধুনিক হোমিওপ্যাথি, ঢাকা
ডাক্তার হাসান; ডি. এইচ. এম. এস(BHMC)
যৌন ও স্ত্রীরোগ, লিভার, কিডনি ও পাইলসরোগ বিশেষজ্ঞ হোমিওপ্যাথ
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪, বাংলাদেশ
ফোন :- +88 01727-382671 এবং +88 01922-437435
স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্য যেকোন সময় নির্দিধায় এবং নিঃসংকোচে যোগাযোগ করুন।

0 comments:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

 
[X]