সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

পোস্টগুলি

July, 2016 থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

লজ্জ্বাবতী গাছের গুনাগুন ও উপকারিতা

বাংলা নাম- লজ্জাবতী। আবার কেউ কেউ এক বলেন লাজুক লতা।
পরিচয় - বর্ষজীবি গুল্ম আগাছা বা ওষুধী গাছ।
কাণ্ড- লতানো। শাখা প্রশাখায় ভরা। কাঁটাযুক্ত। লালচে রঙের। কিছুটা শক্ত। সহজে ভাঙ্গে না বরং পেচিয়ে টানলে ছিড়ে যায়।
পাতা- যেীগিক পত্র। কয়েক জোড়া পাতা বিপ্রতীপভাবে থাকে। অনেকটা তেতুল পাতার মত। হাত ও পায়ের স্পর্শে লজ্জ্বাবতীর পাতা বুঁজে এসে বন্ধ হয়ে যায়। পাতা সরু ও লম্বাটে, সংখ্যায় ২ থেকে ২০ জোড়া। উপপত্র কাঁটায় ভরা। ফুল: উভলিঙ্গ। বৃতির সংখ্যা ৪ টি, পাপড়ী ৪টি, ফুল গুলি বেগুনী ও গোলাপী রঙের। ফল- দেখতে চ্যাপ্টা এবং একত্রিত। মে থেকে জুন মাসে ফুল আসে, জুলাই আগষ্টে ফুল থেকে ফল হয় এবং জানুয়ারি- ফেব্রুয়ারি মাসে বীজ থেকে চারা গজায়। উপকারী অংশঃ- পাতা ও মুল। পাতায় এ্যাকোলয়ড়ে ও এড্রেনালিন এর সব উপকরণ থাকে। এছাড়াও (মড়ৎরহং) টিউগুরিনস্ এবং মুলে ট্যানিন থাকে।
ব্যবহারঃ- দাতেঁর মাঢ়ির ক্ষত সাড়াতে গাছসহ ১৫ থেকে ২০ সে.মি. লম্বা মূল পানিতে সিদ্ধ করে সে পানি দিয়ে কয়েক দিন দিনে ৩ বার কুলকুচা করলে ভালো হয়। সাদা ফুলের লজ্জ্বাবতীর পাতা ও মুল পিষে রস বের করে নিয়মিত খেলে পাইলস্ ও ফিস্টুলায় আরাম পাওয়া যায়।

লজ্জাবতী লতার সমগ্র…

শতাব্দীর সেরা ছবি!

তুরস্কে সেনাবাহিনীর ক্ষুদ্র একটি অংশ ক্ষমতা দখলে রাস্তায় নেমেছে। সারা দেশে কারফিউ ঘোষণা করেছে তারা। তবে এ যাত্রায় জনগণের কাছে হার মানতে হয় বিদ্রোহী সেনাদের। শুক্রবার রাতে ট্যাঙ্ক নিয়ে তুরস্কের নির্বাচিত সরকারকে উৎখাতে রাস্তায় নামে সেনাবাহিনীর কিছু সদস্য। আর সেনাদের সেই ট্যাঙ্কের সামনে দাঁড়িয়ে যান এক যুবক।

গণতন্ত্রকে রক্ষার জন্য রাস্তায় নামা এমন সাহসী যুবক সঙ্গে সঙ্গে ক্যামেরাবন্দী হন বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।
ট্যাঙ্কের সামনে দাঁড়ানো সেই যুবকের ছবি এখন ইন্টারনেটে ভাইরাল। সর্বত্র প্রশংসায় ভাসছেন সেই যুবক। শতাব্দীর সেরা ছবি বলে দাবি করেছেন অনেকেই।

ছবিতে দেখা যায়, একটি জিন্স প্যান্ট পড়ে উদম গায়ে সেনাবাহিনীর ট্যাঙ্কের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন এক যুবক।

এরআগে শুক্রবার রাতে তুরস্কে সেনা অভ্যুত্থান ঘটিয়ে ক্ষমতা দখলের ঘোষণা দিয়েছিল সেনাবাহিনীর ক্ষুদ্র একটি অংশ। তারা তুরস্কের ডানপন্থী সরকার উচ্ছেদের দাবিও করেছিল।

তবে সেনাবাহিনীর ওই অংশের এ দাবি নাকচ করে দিয়েছে দেশটির সরকার। কার্যত গণতন্ত্রপন্থী জনগণের কাছে আত্মসমর্পণ করতে হয় বিদ্রোহী সেনাদের।

এ ঘটনায় ইস্তাম্বুল ও আঙ্কারায় গোলাগুলি ও বিস্ফোরণে ১৭ পুলি…

তুরস্কের সেনা অভ্যুত্থানে জড়িত সেনাসদস্যরা পুলিশের কাছেই আত্মসমর্পণ করেছে !

তুরস্কের সেনা অভ্যুত্থানে জড়িত সেনাসদস্যরা দেশটির পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে। গণতন্ত্রপন্থী সেনা ও জনতার প্রতিরোধের মুখে তাদের এ লজ্জাজনক পরাজয়বরণ করতে হয়েছে। অভ্যুত্থানে জড়িত ৭৫৪জন সেনাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। খবর রয়টার্স, বিবিসি ও আলজাজিরার।

তুরস্কের গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত এরদোগান সরকারের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান ঘটাতে চেয়েছিল সেনাবাহিনীর ক্ষুদ্র একটি অংশ। একপর্যায়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট প্যালেস ও পার্লামেন্ট ভবনকে ঘিরে থাকা বিপথগামী সদস্যদের ঠেকাতে এফ-সিক্সটিন যুদ্ধবিমান থেকে গণতন্ত্রপন্থী সেনারা বোমা নিক্ষেপ করে।
শেষপর্যন্ত গণতন্ত্রী সেনা ও জনতার প্রতিরোধের মুখে বিদ্রোহী সেনারা পর্যুদস্ত হয়ে দেশটির পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে। পরে পুলিশ অভুত্থানে জড়িত ৭৫৪জন সেনাকে গ্রেফতার করে।

অভ্যুত্থান চেষ্টার পর শুরুর দিকে মূলত পুলিশ ও জনতার প্রতিরোধের মুখে পড়ে বিদ্রোহী সেনারা। এরপর তাদের সঙ্গে যোগ দেয় গণতন্ত্রপন্থী সেনারা। বিশেষ করে বিমান বাহিনী এ ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।

বিমানবাহিনী বিদ্রোহী সেনাদের ট্যাঙ্ক লক্ষ্য করে বোমাবর্ষণ শুরু করে। তারা বিদ্রোহীদের একটি হেলিকপ্টারও ভূপাতিত করে…

তুরস্কের অভ্যুত্থানে প্রাসাদ অবরোধকারী সেনাদের ওপর বিমান হামলা চলছে

তুরস্কের অভ্যুত্থান চেষ্টাকারী সেনারা আত্মসমর্পণ শুরু করেছে। তুরস্কের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচার করা ভিডিও ফুটেজের বরাতে এই খবর দিয়েছে বিবিসি। টিভি ফুটেজে দেখা যায়, ইস্তাম্বুলের বসফোরাস ব্রিজের কাছে অন্তত ৫০ জন সেনাসদস্য আত্মসমর্পণ করেছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, এর আগে ইস্তাম্বুলের তাকসিম স্কয়ারের কাছে আরো বেশ কিছু সেনাসদস্যকে সশস্ত্র পুলিশ সদস্যদের কাছে আত্মসমর্পণ করতে দেখা গেছে। এ ছাড়া অভ্যুত্থানচেষ্টাকারী সেনাদের একটি হেলিকপ্টার ভুপাতিত করেছে সরকার সমর্থকরা।
অন্যদিকে, সরকার সমর্থক সেনাসদস্যরা প্রেসিডেন্ট ভবনের বাইরে অবস্থান নেওয়া অভ্যুত্থানচেষ্টাকারী সেনাদের ট্যাঙ্কগুলো লক্ষ্য করে এফ-১৬ জঙ্গিবিমান থেকে বোমা বর্ষণ শুরু করেছে।

এদিকে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রীর বরাতে এএফপি জানিয়েছে, আগের সেনাপ্রধানকে বরখাস্ত করে একজন ভারপ্রাপ্ত নতুন সেনাপ্রধান নিয়োগ কার হয়েছে।

পেটের মেদ কমিয়ে ফেলুন মাত্র ১৫ সেকেন্ড ব্যায়ামে

অনেকেই বলতে শোনা যায় ‘মেদ ভুঁড়ি, কী করি!” মেদ বা ভূঁড়ি বলতে মূলত আমরা পেটের মেদকে বুঝিয়ে থাকি। নারী পুরুষ উভয়ই পেটের মেদ সমস্যায় ভুগে থাকেন। শরীরের অন্যান্য অংশের চেয়ে পেটে দ্রুত মেদ জমে থাকে। আর একবার পেটে মেদ জমলে তা দূর করা বেশ কষ্টকর হয়। ডায়েট করে ওজন হ্রাস করা গেলেও পেটের মেদ কমানো বেশ কঠিন। দ্রুত পেটের মেদ কমানোর জন্য ব্যায়াম সবচেয়ে বেশি কার্যকর। 
জিমে গিয়ে নিয়মিত ব্যায়াম করা বেশ সময় সাপেক্ষ এবং কষ্টকর। তাহলে উপায়? আজ বিডি রমণী আপনাদের দিচ্ছে এর কার্যকারী উপায় , আর তাতে ঘরে মাত্র ১৫ সেকেন্ড একটি সহজ ব্যায়াম করে কমিয়ে ফেলতে পারেন পেটের মেদ! শুনতে অবিশ্বাস্য শোনালেও এটি সত্যি। জাদুকরী ব্য্যামটির নাম “দ্যা প্ল্যাঙ্ক’! যেভাবে করবেন
১। ঘাড় এবং কাঁধ সোজা রেখে মাটিতে দৃঢ়ভাবে হাত রাখুন।

২। এই ব্যায়ামের সম্পূর্ণ মনো্যোগ পেটের দিকে রাখবেন, কিন্তু এই ব্যায়ামের প্রেশারটি পা দিয়ে দিতে হবে। পায় হিল করে চাপ পায়ের আঙুল হতে থেকে স্থানান্তর করা যা উরুর পেশীতে টান অনুভব করে দিয়ে থাকে।

৩। এটি পা থেকে মাথা পর্যন্ত সমস্ত শরীর সমতল থাকবে। না ত্রিকোণ আকৃতির অথবা কোন আকৃতির মত নয়।

৪। ব্যায়ামটি সহজ করার জন্…

বাংলাদেশ সরকারকে জাকির নাইকের চ্যালেঞ্জ

ইসলামী ধর্মপ্রচারক জাকির নাইক বলেছেন, তিনি কখনই কোন সন্ত্রাসী কাজে উৎসাহ দেন নি।তিনি বলেছেন, জিহাদের নামে আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করা ইসলামে দ্বিতীয় বড় পাপ।

“এটা ইসলামে নিষিদ্ধ, হারাম,” মন্তব্য জাকির নাইকের।

বাংলাদেশ সরকারকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তিনি বলেছেন, তার ভাষণের কোন অংশটা সেদেশে অশান্তি সৃষ্টি করতে পারে বলে অভিযোগ তোলা হচ্ছে, সেই পুরো অনুষ্ঠানটা দেখানো হোক।

ভারতীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে সৌদি আরবের মদিনা থেকে স্কাইপের মাধ্যমে জাকির নাইক এক সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন।

মি. নাইক ওই সংবাদ সম্মেলনে বারে বারেই বলতে থাকেন যে তিনি তার কোনও ভাষণেই সন্ত্রাসের পক্ষে কথা বলেন নি।

অনেক ক্ষেত্রে ‘ডক্টরড টেপ’ অর্থাৎ কাটছাঁট করা ভিডিও দেখেই তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগ করছে সংবাদ মাধ্যম, এমনটাই মত জাকির নাইকের।
তিনি বলেন, “সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছে এরকম ছোট ছোট কিছু ভিডিও ক্লিপ দেখেই এধরনের অভিযোগ করা হচ্ছে। কয়েকটা ভিডিও ক্লিপে আবার আমার ভাষণের একটা দুটো বাক্য অপ্রাসঙ্গিক ভাবে তুলে নিয়ে প্রচার করা হচ্ছে।”

গুলশানে জঙ্গি হামলার পর বাংলাদেশে পিস…

ফার্মের মুরগির অপর নাম মৃত্যু! বাঁচতে হলে জানতে হবে! (ভিডিওসহ)

বাংলাদেশের প্রোটিনের একটি বিশাল চাহিদা পূরণ করছে দেশের ফার্মের মুরগি সমূহ। একই সাথে ফার্মে মুরগি পালন এবং তার থেকে লাভবান হচ্ছে অসংখ্য মানুষ।
কিন্তু সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে ফার্মের মুরগির খাদ্যে প্রোটিন হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে চামড়ার উচ্ছিষ্ট আবর্জনা! এ সবের মাঝে রয়েছে ট্যানারিতে চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে দেয়া ক্রোমিয়াম! যা মানব শরীরের জন্য ভয়ংকর বিষ।

এছাড়াও মুরগিকে দেয়া হচ্ছে উচ্চ এন্টিবায়োটিক! ফলে এসব মুরগি মানুষের শরীরের জন্য ভয়াবহ বিষ হিসেবে দেখা দিয়েছে। মুরগির অপর নাম মৃত্যু।

ছদ্মবেশে ঝিনাইদহে ৪ মাস ছিলেন নিবরাস

গুলশানের রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী নিবরাস ইসলামসহ ৮ জঙ্গি ঝিনাইদহ জেলা শহরের খোন্দকার পাড়ার (সোনালী পাড়া) অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট কওছার আলীর বাড়িতে ভাড়া ছিলেন বলে জানা গেছে।

ঈদের আগের দিন বুধবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে যৌথবাহিনীর সদস্যরা ওই বাড়ির মালিক কাওছার আলীসহ পাঁচজনকে আটক করেছে বলে দাবি করেছেন কাওছার আলী স্ত্রী বিলকিস নাহার।

তবে আইন-শৃংখলা বাহিনীর কোনো সূত্র বিষয়টি স্বীকার করেনি।

এদিকে দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, ওই দিন (বুধবার ৬ জুলাই দিবাগত রাত) রাজধানী থেকে উচ্চ পর্যায়ের একটি গোয়েন্দা দল ঝিনাইদহে আসেন। তারা স্থানীয় আইন-শৃংখলা বাহিনীর অন্তত ৩০ সদস্যর একটি দলকে সঙ্গে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেন।
ওই সময় বাড়ির মালিক কওছার আলী (৫০) ও তার দুই ছেলে বিনছার আলী (২৫) এবং বেনজির আলীকে (২২) প্রথমে আটক করা হয়। এরপর তাদের দেয়া তথ্য মতে বাড়ির সঙ্গে লাগোয়ো খোন্দকারপাড়া ও সোনালী পাড়ার মসজিদের ঈমাম রোকনুজ্জামান এবং স্থানীয় মকতবের শিক্ষক আবুল কালাম আজাদের ছেলে হাফেজ সাব্বিরকে আটক করা হয়।

জানা গেছে, ঈদের দিন গত ৭ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে কাওছার আলীর স্ত্রী বিলকিসকেও স্থানীয় র্যাাব ক্য…

এবার সত্যিই পেপ্যাল (Paypal) আসছে বাংলাদেশে

ছোট্ট কিন্তু বিশাল একটি আনন্দের সংবাদ পেলো বাংলাদেশি ফ্রিলান্যান্সাররা। পেপাল আসছে বাংলাদেশে। সোনালি ব্যাংকের সাথে এমওইউ চুক্তি স্বাক্ষর হয়ে গেছে। আগামি ২/৩ মাসের মধ্যেই কাজ শুরু করে দেবে তারা বাংলাদেশে। খবরটি ছড়িয়ে পরার সাথে সাথে বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সারদের উৎসাহ আর বেরে গেলো।

পেপ্যাল বর্তমানে পৃথিবীর ১৯৩টি দেশে কাজ করছে। পেপ্যাল ২৬টি মুদ্রায় গ্রাহকদের অর্থ পাঠাতে, গ্রহণ করতে ও অর্থ সংরক্ষণ করার সুযোগ দিয়ে থাকে। এই মুদ্রাগুলো হল অস্ট্রেলিয়ান ডলার, ব্রাজিলের রিয়েল, কানাডার ডলার, চীনের ইউয়ান (শুধু কিছু চীনা একাউন্টে ব্যবহারযোগ্য), ইউরো, পাউন্ড স্টার্লিং, জাপানি ইয়েন, চেক ক্রোনা, ডেনিশ ক্রোন, হং কং ডলার, হাঙ্গেরীর ফ্রইন্ট, ইসরাইলের নতুন শেকেল, মালেশিয়ার রিঙ্গিত, মেক্সিকোর পেসো, নিউ জিল্যান্ডের ডলার, নরওয়ের ক্রোন, ফিলিপাইনের পেসো, পোল্যান্ডের যোলটি, সিঙ্গাপুরের ডলার, সুইডেনের ক্রোনা, সুইস ফ্যাঙ্ক, নতুন তাইওয়ানের ডলার, থাই ভাত এবং যুক্তরাষ্ট্রে মার্কিন ডলার। এছাড়া পেপ্যাল স্থানীয়ভাবে ২১টি দেশে কাজ করে। ১৯৯৩ সালে ইউরোপে কার্যক্রম শুরু করা এ আর্থিক সংস্থাটি।

সেলুনে চুল কাটার পর একটু ঘাড়-পিঠ মালিশ - সৃষ্টি করতে পারে ভয়ঙ্কর সারভাইক্যাল ডিস্ক প্রলেপস

একটি ছেলে নরসুন্দরের কাছে চুল কাটার পর একটু ঘাড়-পিঠ মালিশ করে নেয় ৫-১০ মিনিট। বিনিময়ে তাকে কিছু বকশিশ দেয়। একদিন ঘাড় মালিশ করার সময় কট করে একটা আওয়াজ হয়, একটু সামান্য ব্যথাও করে উঠেছিল। কিন্তু ছেলেটি অতটা গ্রাহ্য করেনি। দু-এক দিন পর সে ঘাড়ে ব্যথা অনুভব করতে লাগল। ক্রমে ব্যথা বাড়ছে। মা ভাবলেন,হয়তো উল্টাপাল্টাভাবে শোয়ার জন্য ঘাড়ে ব্যথা হয়েছে।  মা প্রতিদিন বালিশ রোদে দিতে লাগলেন, ঘাড়ে গরম কাপড় দিয়ে সেঁক দিতে শুরু করলেন। কিন্তু কিছুতেই ব্যথা কম হচ্ছে না; বরং দিনদিন বাড়ছেই। একপর্যায়ে ব্যথা হাতের মধ্য আঙ্গুল পর্যন্ত আসতে শুরু করল। ব্যথার জন্য ঘাড় নাড়ানোও তার জন্য কষ্টকর হয়ে উঠল। শেষ পর্য়ন্ত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে, চিকিৎসক পরীক্ষা করে বললেন, সারভাইক্যাল ডিস্ক প্রলেপস হয়েছে ।
ঘাড়ের এম আর আই (ম্যাগনেটিক রিজোনেন্স ইমেজিং) ও নার্ভ কনডাকশন স্টাডি পরীক্ষা করে সেটি প্রমাণিত হলো। মেরুদণ্ডের দু্টি হাড়ের মধ্যে এক ধরনের ডিস্ক থাকে সেখান থেকে স্মায়ুগুলো বের হয়ে এসে আমাদের হাতে ছড়িয়ে পড়ে। যখন কোন কারণে ওই ডিস্ক সরে যেয়ে স্মায়ুর উপর চাপ দেয় তখন ব্যথা ঘাড় থেকে হাতের দিকে আসে এটাকে সারভাইক্যাল ইন্টারভার্টি…

‘জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগের কোন সত্যতা মেলেনি’ ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা

ভারতের ফিরে সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেয়ার কথা থাকলেও তা বাতিল করে আফ্রিকায় যাচ্ছেন তরুণদের জঙ্গিবাদে ‘উৎসাহিত করার’ অভিযোগে তদন্তের মুখে থাকা বিতর্কিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েক। সৌদি আরব থেকে ভারতে ফেরার নির্ধারিত যাত্রা আকস্মিক বাতিল করার কথা জানা গিয়েছিলো গতকাল সোমবারই । আজ মঙ্গলবার টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, নিজের প্রতিষ্ঠিত পিচ টিভির মাধ্যমে ব্যাপক পরিচিতি পাওয়া জাকির নায়েক আগামী প্রায় এক মাসের লম্বা সফরে আফ্রিকায় থাকবেন জাকির নায়েক ।
জাকির নায়েকের দেশে না ফেরার এমন ঘটনায় ‘গুজব’ উঠে দেশে ফিরলেই গ্রেফতার পারেন তিনি। এমন অবস্থায় ভারতীয় ইসলামিক স্কলার জাকির নায়েক দেশে ফিরলে তাকে ‘গ্রেফতার করা হতে পারে’ এমন গুজবকে উড়িয়ে দিয়ে মহারাষ্ট্র স্টেইট ইন্টেলিজেন্স ডিপার্টমেন্ট (এসআইডি) নামের ভারতীয় রাস্ট্রিয় গোয়েন্দা সংস্থা জানিয়েছে , ” জাকির নায়েককে গ্রেফতারের কোন কারণ নেই”।
জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে উসকানির অভিযোগের কোন প্রমাণও পাওয়া যায়নি বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি ।

ভারতের প্রভাবশালী গণমাধ্যম ‘দ্য হিন্দু’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
Maharashtra State Intelligence Department (SID…

সব দুয়ার খোলা ফিজিক্স বা পদার্থবিজ্ঞানে

আজকের দুনিয়ায় মানুষ পদার্থবিজ্ঞানকে তাদের কর্মক্ষেত্রে ব্যবহারে এমন সব সফলতা পাচ্ছে যা কল্পনার বাইরে। একজন বিজ্ঞানী শুধু নয়, আবহাওয়াবিদ থেকে একজন ভিডিও গেমস ও নক্সাবিদ সবাই এ শিক্ষাকে কাজে লাগাচ্ছে। এমন কোনো ক্ষেত্রই নেই যেখানে পদার্থকে খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাই একজন পদার্থবিদ হয়ে আলোকিত ক্যারিয়ারের হাতছানিতে সাড়া দেয়াটা খুব একটা অবাস্তব নয়। পদার্থ বা ফিজিক্স শব্দটি গ্রিক শব্দ থেকে এসেছে। যার অর্থ প্রকৃতি। প্রকৃতি সম্পর্কিত জ্ঞানকেই মূলত ফিজিক্স বলতে বোঝানো হয়। প্রকৃতির অজানা বিষয়গুলোর রহস্য উদ্ঘাটনের জের ধরেই আজকের পদার্থবিজ্ঞান। প্রথমদিকে বিজ্ঞান চর্চা ব্যবলিয়ানবাসীর মধ্যে শুরু হলেও তা সম্প্রসারিত হয়ে গ্রিস, ইরান, ভারত, ইউরোপ, মধ্যে এশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে। ২০ শতাব্দীতে এসে পদার্থবিদরা বিজ্ঞান চর্চায় যে বিপ্লব ঘটায় তার ফলাফল আজকের টিভি, রেডিও, কোয়ান্টাম থিওরি, ডিএনএ মলিকিউলার, ট্রান্সসিস্টর, লেজার, পারমাণবিক বোমা এক কথায় আজকের আধুনিক জীবন।
পদার্থবিজ্ঞানের অবস্থান: বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের সাইন্স ব্যাকগ্রাউন্ডের যে কার তালিকার শীর্ষে পদার্থবিজ্ঞানের অবস্থান। পদার্থবিদ্যা এমন একটি…

ব্রিটেনে ১৩৭০ বছর আগের কোরআন মাজীদ পাওয়া গেছে। যখন মোহাম্মাদ (সঃ) জীবিত ছিলেন।

মুসলমান হন তাহলে এড়িয়ে যাবেন না। ব্রিটেনে ১৩৭০ বছর আগের কোরআন মাজীদ পাওয়া গেছে। যখন মোহাম্মাদ (সঃ) জীবিত ছিলেন। দয়া করে শেয়ার করে অন্যকে দেখার সুযোগ করে দিন।

মুসলমান হন তাহলে এড়িয়ে যাবেন না। ব্রিটেনে ১৩৭০ বছর আগের কোরআন মাজীদ পাওয়া গেছে। যখন মোহাম্মাদ (সঃ) জীবিত ছিলেন। দয়া করে শেয়ার করে অন্যকে দেখার সুযোগ করে দিন।

World's oldest Quran fragments have been found in UK by the University of Birmingham which is at least 1,370 years old. Tested by 'Radiocarbon Dating', the Quran manuscript to be among the earliest in existence.

PhD researcher, Alba Fedeli from University of Birmingham has found the world's oldest Quran manuscript in the university library. The pages of the world's oldest Holy Quran has remained the the library for about a century after it has been collected from Middle-East.

These Quran fragments are written on goat or sheep skin and the texts are still legible.

As per Radiocarbon dating tests by the Oxford University Radiocarbon Accelerator Unit, foun…

PHP এবং JAVA প্রোগ্রামিং এর উপর বাংলাদেশে প্রজেক্ট ভিত্তিক প্রোগ্রামিং ট্রেনিং কোন প্রতিষ্ঠান দিয়ে থাকে?

🌹🌹🌹🌹স্টুডেন্টদের জন্য বিশেষ নোটিশ 🌹🌹🌹🌹
➬➬➬➬➬➬➬➬🌹🌹🌹🌹🌹➬➬➬➬➬➬➬➬➬
তরুণদের আগ্রহ দেখে আমি উচ্ছসিত। কারণ, যারা কলেজে বা ইউনিভার্সিটিতে পড়ছেন তাদেরকে শার্প করে গড়ে তোলাই ছিল আমার মূল লক্ষ্য। কলেজে বা ইউনিভার্সিটিতে পড়াকালীন সময়ে অনেকেই সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগেন। কোন দিকে যাবো ? কিভাবে শিখবো ? কোথায় শিখবো ? কিভাবে শুরু করবো ইত্যাদি..... ইত্যাদি..... ইত্যাদি.....।
➥আর এই সময়টাতে নানা প্রকার বিজ্ঞাপনের ছটায় মুগ্ধ হয়ে প্রগ্রামিং শিখার জন্য অনেকেই নানা কোচিং সেন্টারে দৌড়াদৌড়ি করে থাকে। কিন্তু তাদের অধিকাংশই প্রোগ্রামিং এর একেবারে স্টার্ট লেভেলের কিছু বিষয় দেখিয়ে ছেড়ে দেয়, অথবা যা দেখায় একটা প্রজেক্ট করতে অনেক ক্ষেত্রেই তা সহায়ক নয়। এই যেমন PHP প্রোগ্রামিং না শিখে WordPress শেখা, বা PHP ফ্রেমওয়ার্ক শেখা। যারা ইতিপূর্বে এইরূপ করেছেন তারা হয়তো এখন বুঝতে পেরেছেন - আপনি চাইলেই যে কোনো প্রজেক্ট করতে পারছেন না। চাইলেই PHP দিয়ে একটা সফটয়্যার বানাতে পারছেন না। Inventory টাইপের একটা কাজ লাখ দিয়ে করতে দিলেও আপনি দৌড়ে পালান। একটু চিন্তা করুন, কোন পথ দিয়ে আপনি হাটা শুরু করেছিলেন ?

➥দেখা যাচ্ছে ৩-৪ ট…

আপনারা‌তো জঙ্গী নন, জঙ্গীর জন্মদাতাঃ ডঃ তুহিন মালিক

ডঃ তুহিন মালিকের গুলশানে জঙ্গি হামলা নিয়ে একটি ফেইসবুক স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

ডঃ তুহিন মালিকের গুলশানে জঙ্গি হামলা নিয়ে যা লিখেছেন হুবুহু পোস্ট করা হল। তদিন আপনারা জঙ্গি খুঁজেছেন মসজিদ-মাদরাসায়। কোরআনের মাহফিল বন্ধ করে রেখেছেন ১৪৪ ধারা দিয়ে। পাঠ্যপুস্তক থেকে ধর্মীয় শিক্ষাকে বাদ দিয়ে নৈতিকতা বিমুখ শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করলেন।
কোরআন হাদিসকে জিহাদী পুস্তক বলে মানুষের কাছ থেকে দুরে সরিয়ে রাখলেন। জঙ্গি বলে আঠারো হাজার নিরাপরাধকে জেলে ঢুকিয়ে দিয়ে নিজেদের আস্তিনের নীচেই সাপকে পুঁষে রাখলেন। আর এতে আপনাদের সন্তানরাই আল্লাহকে খুঁজে পাবার সব রাস্তা বন্ধ পেয়ে আইএসকে খুঁজে পেলো !!

আপনারা নিরীহ মাদরাসার ছাত্রদেরকে জঙ্গি বললেন; অথচ নিজেদের সন্তানের বেলায় বললেন ব্রেন ওয়াশ! আপনারা তো জঙ্গি নন; জঙ্গির জন্মদাতা। এখন এলিটদের সন্তানরাই যদি জঙ্গি হয়ে যায়, তাহলে লড়াইটা করবেন কার বিরুদ্ধে।

বাংলাদেশের জঙ্গী হামলার ঘটনায় অবশেষে ভারতে বন্ধ হলো পিচ টিভির সম্প্রচার !

”গুলশান হামলায় অংশগ্রহনকারী নিহত দুই শীর্ষ জঙ্গী ভারতের ইসলামী নেতা ড. জাকির নায়েককে অনুসরন করতেন” এমন শিরোনামে বাংলাদেশের একটি শীর্ষ ইংরেজি দৈনিকে সংবাদ প্রকাশের পর নড়ে চড়ে বসেছে ভারত। গত কদিন ধরে চলে আসা নানা আলোচনার পর ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন ও পিস টিভির প্রতিষ্ঠাতা জাকির নায়েককে গ্রেফতারের দাবি তুলেছিলো ভারতের উত্তর প্রদেশের মুসলমান নেতারা।

তাদের দাবীর সাথে একাত্মতা রেখেই খুব দ্রুত নেয়া সরকারী সিদ্ধান্তে অবশেষে বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে পিস টিভির সম্প্রচার ।

অবশেষে নানা জল্পনা কল্পনার পর ডা. জাকির নায়েকের পিচ টিভির সম্প্রচার বন্ধে কেবল অপারেটরদের নির্দেশ দিয়েছে ভারত সরকার। দেশটির তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় এ নির্দেশ দিয়েছে। পিচ টিভি জাকির নায়েক পরিচালিত মুম্বাইভিত্তিক ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের একটি প্রতিষ্ঠান।
ভারতের তথ্য মন্ত্রনালয়ের বরাতে এনডিটিভি জানিয়েছে, ” মুম্বাই ভিত্তিক চ্যানেল হলেও পিচ টিভির সম্প্রচার হত দুবাই থেকে। ভারতে এই চ্যানেল ক্যাবল অপারেটরের মাধ্যমে দেখতো দর্শকেরা । ভারতে এই টিভির সম্প্রচার বন্ধ করা হয়েছে লাইসেন্স সংক্রান্ত জটিলতার কারনে” ।

তবে এনডিটিভ ও ভারতের …

মুসলিম বিজ্ঞানীদের থেকে চুরি করে বিধর্মীদের কথিত বিজ্ঞানীরা আজ বিজ্ঞানী হিসেবে পরিচিত

গত কয়েকদিন যাবত বিজ্ঞানীদের নোবেল প্রাইজ দেওয়া চলছে। ইউরোপ-আমেরিকা মানুষ বিজ্ঞান চর্চায় এগিযে যাচ্ছে, এই নোবেল প্রাইজ যেন সেই কথাই প্রকাশ করতে চায়। আমার গত পোস্টে লিখেছি, পীযূষ বন্দোপাধ্যায় তার কবিতায় বলেছে- ‘হে পশ্চাৎপদ মোল্লা মৌলভী তোরা কবে হবি বিজ্ঞানমুখী’ ?

কি সুন্দর কথা। মোল্লা-মৌলভীদের বিজ্ঞানমুখী হতে বলে। অথচ ইতিহাস সাক্ষী দেয়, ইউরোপে যে বিজ্ঞান চর্চা হয়েছিলো তার শুরু ছিলো ১৭শ’ শতাব্দী থেকে। ১৭শ’ শতাব্দীর পূর্বে পশ্চিমাদের মধ্যে তেমন বিজ্ঞানীর অস্তিত্ব পাওয়া যায় না। এ জন্য তারা দাবি করে, ১৭’ শতাব্দী থেকে নাকি আধুনিক বিজ্ঞানের সূচনা ! উইলিয়াম গিলবার্ট, কেপলার, গ্যালিলিও, স্নেল, বাইসেল প্যাসকেল, রবার্ট বয়েল, রবার্ট হুক, আইজাক নিউটন সবাই যেন ১৭শ’ শতাব্দীতে এসে হঠাৎ করে টপ টপ করে পড়া শুরু করে। রহস্যটা কি ?
অথচ মুসলিম বিজ্ঞানীদের সময়টা দেখুন-
মুসা আল খোয়ারিজমি (৭৮০-৮৫০)জাবির ইবনে হাইয়ান (৭২২-৮০৪)আব্বাস ইবনে ফিরনাস (৮১০-৮৮৭)আল বিরুনি (৯৭৩- ১০৪৮)আবু নাসের আল ফারাবি (৮৭২-৯৫০)আল বাত্তানি (৮৫৮ – ৯২৯)ইবনে সিনা (৮৯০ – ১০৩৭)ইবনে বতুতা (১৩০৪-১৩৬৯)ওমর খৈয়াম (১০৪৮ – ১১৩১)ইবনে কুরা (৮২৬- ৯০১)আ…

পেটে গ্যাসের সমস্যা সমাধান করুন ঘরোয়া ৫ উপায়ে

ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি। এই খুশি দ্বিগুণ হয়ে যায় মজাদার সব খাবারের সমারোহে। কিন্তু এক মাস রোজা রাখার পর হঠাৎ করে পোলাও, বিরিয়ানি, জর্দা, সেমাই ইত্যাদি ভারী খাবার খাওয়ায় পেটে গ্যাস সৃষ্টি হয়। তাই এইসময় অ্যাসিডিটি বা গ্যাস্টিকের সমস্যা ব্যাপকভাবে দেখা দেয়। তাই বলে কি ঈদে খাওয়া দাওয়া বন্ধ রাখবেন? তাও কি সম্ভব! ঘরোয়া কিছু উপায়ে পেটের গ্যাসের সমস্যা সমাধান করা সম্ভব। আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক জাদুকরী সেই উপায়গুলো। 
১। তুলসি তুলসির অ্যান্টিউলার উপাদান পেটের গ্যাস দূর করে। পেটে গ্যাস হলে ৫-৬টি তুলসি পাতা চিবিয়ে খান। দেখবেন সাথে সাথে পেটের গ্যাস অনেকটা কমে গেছে।  ২। দারুচিনি হজমশক্তি বৃদ্ধিতে দারুচিনি বেশ উপকারী একটি মশলা। এটি প্রাকৃতিক এনটাসিড হিসাবে কাজ করে থাকে এবং পেটের গ্যাস দূর করতে সাহায্য করে। এক কাপ পানিতে আধা চাচামচ দারুচিনি গুঁড়ো মেশান। কয়েক মিনিট সেটি জ্বাল দিন। এটি দিনে ২/৩ বার পান করতে পারেন।  ৩। লবঙ্গ কয়েকটি লবঙ্গ এবং দারুচিনি গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে নিন। এটি আপনি আপনার প্রতিদিনের খাবারের সাথে খাওয়ার অভ্যাস করুন। লবঙ্গ গ্যাসের সমস্যা দূর করার সাথে সাথে আপনার নিঃশ্বাসের দুর্গন…

শোলাকিয়ায় বন্দুক যুদ্ধে নিহত জঙ্গি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র

শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের বাইরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে যে হামলাকারী নিহত হয়েছে তার পরিচয় জানা গেছে।নিহতের পরিচিতদের বেশ কয়েকজন জানিয়েছেন, নিহত ওই হামলাকারীর নাম আবির রহমান। সে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিল। গত আট মাস ধরেই সে নিখোঁজ ছিল। তার বাবার নাম সিরাজুল ইসলাম।

আবিরের পরিচিতজনরা গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবি ও প্রচারকৃত ভিডিওতে তার ছবি দেখে তাকে সনাক্ত করেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন। আবির ২০১০ সালে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল টিউটোরিয়াল থেকে এ লেভেল পাশ করেন। এরপর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ পড়ছিলেন তিনি।  শোলাকিয়ার ওই হামলায় সাত থেকে আটজন তরুণ অংশগ্রহণ করে যাদের সকলেরই বয়স ২০ এর কোঠায়। এই হামলায় ২ পুলিশ সদস্য নিহত এবং আরো অন্তত ৬ জন আহত হন।

শোলাকিয়ায় হামলা: ব্যাগ তল্লাশির সময় পুলিশের ঘাড়ে কোপ!

‘পুলিশ যখন ব্যাগ তল্লাশি করতে যায় তখন এক জঙ্গি পুলিশ কনস্টেবলের ঘাড়ে কোপ দেয়। কোপ দেওয়ার সাথে সাথে গুলি।’

কিশোরগঞ্জের স্থানীয় এক সাংবাদিক বিবিসিকে এ কথা জানান। তিনি শোলাকিয়ার বাসিন্দা এবং ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী।

নিরাপত্তার জন্য শোলাকিয়া ঈদগাহের সামনে কিশোরগঞ্জ আজিমউদ্দিন হাইস্কুলের সামনে একটি পুলিশ চৌকি স্থাপন করা হয়। ওই চৌকিতেই তল্লাশির সময় পুলিশের ওপর হামলা করা হয় বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়। স্থানীয় ওই সাংবাদিক বলেন, ‘কোপ দেওয়ার সাথে সাথে গোলাগুলি শুরু হয়। পুলিশ পাল্টা গোলাগুলি করার একপর্যায়ে অন্য পুলিশ সদস্যরা যখন আসে, তখন সন্ত্রাসীরা পালাতে চেষ্টা করে।

ওই এলাকার গোলাপবাগে হামলাকারীরা যখন অবস্থান নেয়, তখন পুলিশ দুজন হামলাকারীকে চিনতে পারে। হামলাকারীদের একজন চারতলা একটি বাড়ির নিচে আশ্রয় নেয়।

পুলিশ ওই হামলাকারীকে বন্দুক ও চাপাতিসহ আটক করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দুটি পিস্তল, কয়েক রাউন্ড গুলি, একটি চাপাতি ও ককটেল উদ্ধার করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিক আরো জানান, মাইকে বয়ান চলছিল। বয়ানের কারণে হামলার ঘটনার খবর ভেতরে তেমন ছড়ায়নি। আতঙ্ক ছড়ালে দৌড়াদৌড়ি হতে পারত, পদপিষ্ট হওয়ার ঘটনা ঘটতে পারত।

নামাজের…

জাকির নায়েকের অফিস ঘিরে ফেলেছে পুলিশ

প্রখ্যাত ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েকের মুম্বাইস্থ অফিসের বাইরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে এটা করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। গুলশান ঘটনায় জড়িত পাঁচ সন্ত্রাসী জাকির নায়েকের বক্তৃতায় উদ্বুদ্ধ হয়েছে, এমন খবর প্রকাশের প্রেক্ষাপটে এই ব্যবস্থা নেয়া হলো। বৃহস্পতিবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে এ কথা জানানো হয়।
মুম্বাইয়ের এক সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, দক্ষিণ মুম্বাইয়ের ডোনগ্রি এলাকায় জাকির নায়েকের 'ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের' বাইরে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। সাম্প্রতিক ঘটনার প্রেক্ষাপটে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে এটা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, আমরা কোনো হুমকি বা রাজ্য কিংবা কেন্দ্র থেকে বিশেষ কোনো নির্দেশনা পাইনি। অনাকাঙ্ক্ষিত যেকোনো ঘটনা এড়ানোর জন্য এটা করা হয়েছে।
বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু দিল্লিতে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, জাকির নায়েকের বক্তৃতা আমদের জন্য উদ্বেগজনক। আমাদের সংস্থাগুলো এটা নিয়ে কাজ করছে। তবে মন্ত্রী হিসেবে, আমি কী ব্যবস্থা নেয়া হবে, তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।

সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়লো শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে হামলাকারী দুজন সন্ত্রাসীর অস্ত্রহাতে দৌড়

ঘটনাস্থলের একটি বাড়িতে বসানো ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরায় ধরা পড়ে হামলার উদ্দেশ্যে এই দুই সন্ত্রাসীর ছুটে যাওয়া ।

কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের কাছে সন্ত্রাসীদের হামলায় (সর্বশেষ খবর অনুযায়ী ) নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা দুইজন পুলিশ সদস্যসহ মোট ৪ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে একজন সাধারন এলাকাবাসী ও এক সন্ত্রাসী রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আকস্মিক শুরু হওয়া এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। এদের মধ্যে পুলিশ সদস্যই বেশি। আহতদের মধ্যে দুই পুলিশ সদস্যকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার সিএমএইচে নেওয়া হয়েছে। বাকিরা কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নিহতরা হলেন, পুলিশের কনস্টেবল জহিরুল হক, সানাউল হক ও এলাকাবাসী ঝর্ণা ভৌমিক। নিহত সন্ত্রাসীর নাম পরিচয় জানা যায়নি।
অভিযানের সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল ও একটি চাপাতি উদ্ধার করেছে ও আহত অবস্থায় এক দুই সন্ত্রাসীসহ মোট ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
আটক সন্ত্রাসীরা হলেন, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার আব্দুল হাই এর ছেলে শরিফুল ইসলাম ওরফে আবু মোকাত্বিল (২২) ও কিশোরগঞ্জের পশ্চিম তারপাশা এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে জাহিদুল …

শোলাকিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় দুই পুলিশসহ নিহত ৪, আটক জঙ্গীর জবানবন্দীতে বেরিয়ে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আকস্মিক শুরু হওয়া এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। এদের মধ্যে পুলিশ সদস্যই বেশি। আহতদের মধ্যে দুই পুলিশ সদস্যকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার সিএমএইচে নেওয়া হয়েছে। বাকিরা কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নিহতরা হলেন, পুলিশের কনস্টেবল জহিরুল হক, সানাউল হক ও এলাকাবাসী ঝর্ণা ভৌমিক। নিহত সন্ত্রাসীর নাম পরিচয় জানা যায়নি।

অভিযানের সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল ও একটি চাপাতি উদ্ধার করেছে ও আহত অবস্থায় এক দুই সন্ত্রাসীসহ মোট ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
আটক সন্ত্রাসীরা হলেন, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার আব্দুল হাই এর ছেলে শরিফুল ইসলাম ওরফে আবু মোকাত্বিল (২২) ও কিশোরগঞ্জের পশ্চিম তারপাশা এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে জাহিদুল হক (২০)। অন্য দুইজনের নাম জানা যায়নি। কিশোরগঞ্জে শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠের কাছে সন্ত্রাসী হামলায় আটজন অংশ নেয় বলে পুলিশের হাতে আটক আহত এক সন্ত্রাসী ।
এদিকে এ ঘটনার পর ঘটনায় বর্তমানে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ঘটনার পর থেকেই ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি এসএম নূরুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশ, র্যাব ও বিজিবির যৌথ অভিযান চলছে।


জানা গেছ…

সাদ্দাম ও গাদ্দাফি বেঁচে থাকলে আইএসের উত্থান হত না : ট্রাম্প

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক শাসক সাদ্দাম হোসেনের প্রশংসা করলেন যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে উত্তর ক্যারোলাইনার রালিগে এক নির্বাচনী সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।
ওই জনসভায় ট্রাম্প বলেন, ‘সাদ্দাম হোসেনকে আমরা একজন খারাপ মানুষ হিসেবেই জানি। ঠিক? কিন্তু তিনি কী করেছিলেন? তিনি সন্ত্রাসীদের হত্যা করেছিলেন। এবং আমার মতে তিনি এটি খুব ভালো কাজ করেছিলেন।’

ওই সমাবেশে ট্রাম্প মন্তব্য করেন, ‘মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে আসলে স্বৈরশাসনই প্রয়োজন।’

প্রকাশিত সংবাদে এপি ও সিএনএন জানায়, চলতি শতকের শুরুতে ইরাকে হামলার পক্ষের অন্যতম সরব মুখ ছিলেন তখনকার ধনী ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী ধারাবাহিক সন্ত্রাসী হামলার কারণে তিনি তার আগের ধারণা থেকে সরে এসেছেন বলে জানিয়েছেন। ট্রাম্প এর আগেও স্বীকার করেছেন, ইরাকে হামলা করা ছিল ‘বড় ভুল’।
চলতি বছরে এক নির্বাচনী সভায় ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘এখন আইএসের সবচেয়ে বড় ঘাঁটিগুলোর অন্যতম লিবিয়া ও ইরাক। এখন যদি লিবিয়ার শাসক গাদ্দাফি এবং ইরাকের সাদ্দাম জীবিত থাকতেন, তাহলে সন্ত্রাসবাদ এতটা বিস্ত…

আইএস নামটিই অনৈসলামিক: জাকির নায়েক

মুম্বাইয়ের ইসলামিক রিসার্স ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা জাকির নায়েক বলেছেন, বাংলাদেশের ৯০ শতাংশ মানুষ আমাকে চেনেন। এই অবস্থায় জঙ্গিরা যদি আমায় চেনে তাহলে কি আমার খুব বেশি অবাক হওয়ার কথা? তিনি বলেন, “ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড সিরিয়া (আইএস) নামটিই অনৈসলামিক।” গুলশানের জঙ্গিদের কয়েকজন জাকির নায়েকের বক্তব্য দ্বারা অনুপ্রাণিত -এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই মন্তব্য করেন জাকির নায়েক। মঙ্গলবার জাকির নায়েকের বক্তব্য নিয়ে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস একটি সংবাদ প্রকাশ করে।  জাকির নায়েক এই মুহূর্তে সৌদি আরবের মক্কায় অবস্থান করছেন। সেখানেই তিনি শুনেছেন গুলশানের হত্যাকারীরা তাঁর অনুসারী এমন একটি বক্তব্য। সেই বক্তব্যটিকে মিথ্যা হিসেবে উল্লেখ করে আজ সকালে তিনি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, ‘আমার ফেসবুক ফলোয়ারের বড় অংশই বাংলাদেশি। এ ছাড়া বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলের মানুষই বাংলায় প্রচারিত পিসটিভিতে আমাকে দেখেন। ৯০ শতাংশ বাংলাদেশি আমাকে চেনেন। প্রবীণ রাজনীতিক থেকে সাধারণ মানুষ, ছাত্র, শিক্ষকরা রয়েছেন সেই তালিকায়। আর এই বিপুল মানুষের পঞ্চাশ শতাংশ আমার গুণমুগ্ধ। এই অবস্থায় জঙ্গিরা যদি আমায় চেনে ত…

হার্ট অ্যাটাকের পরে ভুলেও করবেন না এই ৭টি কাজ

হৃদরোগ বা হার্ট অ্যাটাক সাধারণ আর দশটি রোগের মত নয়। খুব সাধারণ কিছু লক্ষণ থেকে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক। আবার কোন লক্ষণ ছাড়াও হয়ে যেতে মাইনর হার্ট অ্যাটাক।

একবার হার্ট অ্যাটাক হয়ে গেলে রোগীকে একটু বেশি সচেতন থাকতে হয়। কারণ এরপরের বার মেজর অ্যাটাক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই হার্ট অ্যাটাক হওয়ার পর পরিবর্তন করতে হয় লাইফ স্টাইল, ত্যাগ করতে হয় কিছু অভ্যাস।

১. ধূমপানঃ আপনি যদি অধূমপায়ী হয়ে থাকেন, তবে এটি আপনার জন্য নয়। ধূমপান হৃদযন্ত্র থেকে যে রক্ত প্রবাহিত হয়, তার প্রভাবিত করে থাকে এবং এর সাথে ধমনী ব্লক করে থাকে। তাই হার্ট অ্যাটাকের পরে অতি দ্রুত ধূমপানের অভ্যাস ত্যাগ করুন।

২. পরিপূর্ণ এবং ট্রান্স ফ্যাটঃ ট্রান্স ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার এড়িয়ে যাওয়া উচিত। এই খাবারগুলো ধমনীর গায়ে দেওয়াল তুলে দেয় এবং হৃদযন্ত্রে রক্ত পৌঁছাতে বাঁধা দিয়ে থাকে। জাঙ্ক ফুড, ফাস্ট ফুড খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।
৩. চিনি এবং লবণঃ চিনি এবং চিনি জাতীয় খাবার যেমন চকলেট, পেস্ট্রি, মিষ্টি খাবার কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করে থাকে। যা রক্ত ঘন করে রক্তনালী বন্ধ করে দেয়। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের মতে হার্টের রোগীদের লবণ একটি নির্দিষ্ট সীম…

শোলাকিয়ায় নামাজ পড়াতে পারেননি - ফরিদ উদ্দিন মাসউদ

এবার ঐতিহ্যবাহী শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত পড়াননি নির্ধারিত ইমাম মাওলানা ফরিদউদ্দিন মাসউদ। তার বদলে আজ বৃহস্পতিবার ঈদুল ফিতরের নামাজে ইমামতি করেছেন মাওলানা আবদুর রওফ বিন শোয়াইব। নামাজের আগে বিস্ফোরণ ও গোলাগুলিতে হতাহত হওয়ার ঘটনার মধ্যে ভিন্ন ইমাম দিয়ে নামাজ হয়েছে।

সকাল ৯টার দিকে শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতে ইমামতি করতে স্থানীয় সার্কিট হাউসে পৌঁছান আল্লামা ফরিদ উদ্দীন মাসঊদ। ঈদগাহর পথে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয়ার সময়ই খবর আসে ঈদগাহর প্রবেশপথে বোমাহামলা হয়েছে। এতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে সেখানে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়নি। প্রধান ইমামের অনুপস্থিতিতে আর একজন ইমাম ঈদের নামাজে ইমামতি করেন।

শোলাকিয়া ঈদগাহে বোমা হামলা, দুই পুলিশ সদস্যসহ নিহত এক হামলাকারী

শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের প্রবেশপথে জঙ্গিদের সঙ্গে গোলাগুলিতে দুই পুলিশ সদস্য ও এক হামলাকারী নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরো ৮ পুলিশ সদস্য। এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। হামলাক্রী একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ।

নিহত পুলিশ সদস্যরা হলেন জহিরুল ইসলাম ও আনসারুল। গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ-হামলাকারী সংঘর্ষে নিহত হয়েছে জঙ্গিদলের একজন। তবে নিহত জঙ্গির পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ।
এর মধ্যে পুলিশ কনস্টেবল আনসারুল (৪০) বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে ময়মনসিংহ সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএস) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার বাসিন্দা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের পাশে এ ঘটনা শুরু হয়। ঘটনায় জড়িত এক দুর্বৃত্তকে আটক করেছে পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের পাশে আজিমুদ্দিন স্কুলের মাঠে ৫-৬ জন যুবক ঈদগাহ ময়দানের ভেতরে প্রবেশ করতে চায়। এ সময় সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করে তল্লাশি করতে চান। একপর্যায়ে দুর্বৃত্তরা ব্যাগের …

জাকির নায়েককে নিষিদ্ধের দাবি, যা বললেন এই ইসলাম প্রচারক

বাংলাদেশে এক আওয়ামী লীগ নেতার জঙ্গি ছেলে ফেসবুকে ভারতের খ্যাতনামা ইসলামী চিন্তাবিদ, বক্তা ও লেখক জাকির নায়েকের উদ্ধৃতি দেয়ায় তাকে নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছে ভারতের কিছু লোক।

গুলশানে কমান্ডো অভিযানে নিহত রোহান ইবনে ইমতিয়াজ গত জানুয়ারিতে জাকির নায়েকের নাম করে উদ্ধৃতি দেয় যে ‘সব মুসলিমকে সন্ত্রাসবাদী হতে হবে।’

এরপর সে নিখোঁজ হয়।

রোহান ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা ইমতিয়াজ খান বাবুলের ছেলে৷

রোহানের এ উদ্ধৃতি ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ পেলে জাকির নায়েককে নিষিদ্ধের দাবি ওঠে। হিন্দু মৌলবাদী সংগঠন শিব সেনাও এ দাবি তুলেছে।

তবে এ দাবি প্রকারান্তরে নাকচ করে দিয়েছেন ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজ্জু।
তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা ব্যক্তিকে নিষিদ্ধ করি না। আমরা নিষিদ্ধ করি সংগঠনকে। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক অনুরোধ পাইনি। তারা অনুরোধ করলে আমরা বিবেচনা করে দেখব কী করা যায়।’

আরবি ভাষাভাষীদের বাইরে ইসলাম প্রচারকারীদের মধ্যে অন্যতম আলোচিত হলেন জাকির নায়েক। নিজের প্রতিষ্ঠিত পিস টিভিতে তিনি তুলনামূলক ধর্মতত্ত্ব নিয়ে যে আলোচনা করেন, তা বাংলাদেশের মানুষের কাছেও ব্যাপক পরিচিত। ভারতের মহার…

ঈদ এস.এম.এস SMS কালেকশন

যারা বন্ধুদের বা প্রিয়জনদের ঈদ এসএমএস পাঠাচ্ছেন তাদের জন্য- 1. Je din dekhbo Eid er chad.Khushi mone katabo rat.Notun saje sajabo aj.Aj holo Eid er din.Anonde katabo sara din. . .!

2. Ful Suvas Dei, Dristi Mon Churi Korai, Khusi Amader Hasai, Dukkho Amadere Kadai, Ar Amar Ei Sms Tomake Eider Suveccha Janai. “EID MUBARAK”

3. Rong Legeche Mone. Modhur Ei khone. Tomay ami Rangiye Dibo Eider Ei Dine. “SHUVO Eid Mubarak”

4. Ceye Dekho! Nil Akashe, Cad Utheche! EID-er Cad, Khushi Barta Niye. Sei Khushite Muder Bari, Dawat Dilam Asite. Asbe Kintu Noy Rag Korbo, Tumar Sone.

5. Durer Manus Asuk Kache, Kacher Jon- O Thakuk Pashe, Mon Chute Jak Moner Tane, Noya Chader Agomone, EID Katuk Khusi M0ne.  ***EID MUBARAK***

6. Kal Eid Ul Fitr. Sajbe Tumi Mehadi Diye Rangga Be Tomar Hat. Ai Khusir Somoy Tuku Katuk Tomar Baromas. {EID MUBARAK}
7. Eid er dawat dilam bondhu,,, Asbe amar bari… Onek kotha jome ace,,, bolbo 2may ami… Na asle 2mar sathe bolbo na r kotha,,, Kono din pabe na 2me amar dekha…!



8. Nil a…

আইএস–এর সঙ্গে ইসলামের সম্পর্ক নেই :‌ জাকির নায়েক

বাংলাদেশের গুলশানে জঙ্গি আক্রমণের নিন্দা করলেন মুসলিম বুদ্ধিজীবী ডঃ জাকির নায়েক। একটি সর্বভারতীয় সংবাদপত্রকে তিনি জানিয়েছেন, ‘‌ইসলামিক স্টেট বলে আসলে আমরা ইসলামকে নিন্দা করছি। ইরাক এবং সিরিয়ায় নিরপরাধ মানুষকে ওরা হত্যা করছে। তারা কিছুতেই ইসলামিক স্টেট তৈরি করতে পারে না। ইসলামের শত্রুরাই তাদের এই নামে ডাকছে।’‌
ঢাকায় সন্ত্রাসী হামলায় উঠে এসেছে জাকির নায়েকের নাম। জঙ্গিরা নাকি তার কথায় অনপ্রাণিত হয়েই হামলা চালিয়েছে। এই অবস্থায় জঙ্গি মতবাদের সঙ্গে দূরত্বই বাড়ালেন নায়েক। তিনি বলেছেন, ‘‌আমার ফেসবুক ফলোয়ারের বড় অংশই বাংলাদেশী। ৯০ শতাংশ বাংলাদেশি আমাকে চেনেন। প্রবীণ রাজনীতিক থেকে সাধারণ মানুষ, শিক্ষকরা রয়েছেন সেই তালিকায়। তাঁদের পঞ্চাশ শতাংশ আমার গুণমুগ্ধ। তাহলে জঙ্গিরা আমায় চিনত বলে আমি কী অবাক হব? না।‌’‌
তবে তিনি জঙ্গি আক্রমণ সমর্থন করেন না বলে সাফ জানিয়েছেন। ‘‌পিস টিভি’‌তে প্রতিদিনের টেলিভিশন অনুষ্ঠানে ইসলাম নিয়ে বক্তব্য রাখেন নায়েক। মুসলিম বিশ্বে তিনি একজন জনপ্রিয় বক্তা। ফেসবুকে তার ১ কোটি ৪০ লাখ ফলোয়ার রয়েছে। বিভিন্ন ভাষায় বিশ্বের ২০ কোটি মানুষ টিভিতে তার অনুষ্ঠান দেখেন।

গরুর মাংসের স্বাদ বদলে ভিন্নধর্মী বিফ ভুনা রেসিপি

গরুর মাংস খেতে আমার সবাই পছন্দ করি তবে অনেক সময় একই ধরনের রান্না খেতে বোরিং লাগে। তাই বিডি রমণী আপনাদের জন্য আজ নিয়ে এলো গরুর মাংসের স্বাদ বদলে ভিন্নধর্মী বিফ ভুনা রেসিপি। এটি খেতেও সুস্বাদু আর তৈরি করাও সহজ। এর আগে আপনারা দেখেছেন জিভে জল আনা ঝুরা মাংস রেসিপি। তাহলে দেখে নিন আজকের ভিন্ন ধর্মী রেসিপি আর তৈরি করে খান ও উপহার দিন প্রিয়জনদের।

উপকরণ:- ✿ আদা বাটা ২ টে চামচ
✿ রসুন বাটা ২ টে চামচ
✿ জিরা গুরা ১ চা চামচ
✿ গরুর মাংস ২ কেজি
✿ পিঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ
✿ পিঁয়াজ কুচি ২ টে চামচ
✿ পিয়াজ কিউব করে কাটা ১/২ কাপ
✿ বাদাম বাটা ১ টে চামচ
✿ তেজপাতা,দারুচিনি,এলাচ দুটি করে
✿ জিরা টালা গুঁড়ো ১ চা চামচ
✿ ধনে গুঁড়ো ১ চা চামচ
✿ গরম মসলা গুঁড়ো ১ চা চামচ
✿ জায়ফল -জয়ত্রি গুঁড়ো ১ চা চামচ
✿ টক দই ১/২ কাপ
✿ মরিচ গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
✿ গোল মরিচ গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ
✿ হলুদ গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
✿ সয়া সস ১/২ কাপ
✿ কাচামরিচ ৪ টি
✿ সরিষার তেল ১/২ কাপ
প্রনালি:- মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। টক দই,সয়াসস,আদা বাটা,রসুন বাটা,গোল মরিচ,লবণ দিয়ে ম্যারিনেট করুন ১/২ ঘন্টা। হাঁড়িতে অর্ধেক সরিষার তেল গরম করে একটা করে গরম মসলা ফোড়ন দিন। পিঁয়াজ কুচি দিয়ে একটু…

ওষুধ ছাড়াই জ্বর, সর্দি, কাশি সারান এভাবে

অবশেষে বর্ষা এসে গিয়েছে। তবে প্রচন্ড গরমের হাত থেকে কিছুটা স্বস্তি পাওয়া গেলেও বর্ষা আসায় ফের একটা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে আমাদের। হঠাত্‌ এই আবহাওয়ার পরিবর্তনের জন্য সর্দি, কাশি, জ্বরের কবলে পড়তে হচ্ছে আমাদের। এই সময়ে বিভিন্ন ভাইরাল ইনফেকশনে ভুগতে হয় আমাদের। তবে এই জ্বর, সর্দি, কাশির চিকিত্‌সার বেশ কিছু ঘরোয়া উপায় রয়েছে। যা আপনার রান্নাঘরেই মজুত থাকে।

দেখে নিন বর্ষাকালে এরকম সমস্যা থেকে মুক্তির ঘরোয়া উপায়গুলি-

১) রসুন- বলা হয় রসুনের থেকে ভালো ওষুধ আর হয় না। রসুনের গুণাগুণ অনেক। ভাইরাল ফিভার, ঠান্ডা লাগার মতো অসুখের প্রতিরোধ করতে রসুন খুব উপকারী। শুধু ঠান্ডা লাগাই নয়, উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রন কোলেস্টেরল, হার্ট অ্যাটাক এবং স্টোক প্রতিরোধেও রসুন খুব কাজে দেয়। ৫ থেকে ৬ কোয়া রসুন থেঁতো করে নিন। তারপর সেটা শুধু খেতে পারেন কিংবা স্যুপের সঙ্গে মিশিয়েও খেতে পারেন।
২) আদা- রসুনের মতোই আদাও খুবই উপকারী একটি ঘরোয়া উপাদান। অনেকরকমের রোগ প্রতিরোধ করতে আদা খুব উপকারী। জ্বর কমাতে এক কাপ আদা সেদ্ধর রসে মধু মিশিয়ে খান। তত্‌ক্ষণাত্‌ ফল পাবেন।

৩) দারুচিনি- গলা ব্যথা, ঠান্ডা লাগা, কফ সারাতে দারুচিনি খুবই উপকারী। এ…

ইসলামের এক নম্বর শত্রু আইএস : মুখ্য সৌদি মুফতি

সৌদি আরবের প্রধান মুফতি শেখ আব্দুল আজিজ আল-শেখ জঙ্গি সংগঠন আল-কায়েদা ও ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) ইসলামের এক নম্বর শত্রু বলে অভিহিত করেছেন। আল অ্যারাবিয়ার প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল প্যান অ্যারাবের সংবাদেও দেশটির প্রধান আলেমের এই বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে।মুফতি শেখ আব্দুল বলেছেন, ‘চরমপন্থা, উগ্রপন্থা কিংবা সন্ত্রাসবাদের সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই। এসব যারা করছে তারাই ইসলামের এক নম্বর শত্রু।’

তিনি ইরাক এবং সিরিয়ার কিছু অংশে ঘাঁটি গেড়ে থাকা জঙ্গি দল ইসলামিক স্টেটের খেলাফত আন্দোলন ও আলকায়েদাকে ইসলামের প্রধান শত্রু বলে চিহ্নিত করে এমন মন্তব্য করেন।
গত বুধবার, বিশ্বসন্ত্রাস মোকাবেলায় জাতিসংঘের সন্ত্রাসবিরোধী কেন্দ্রে (ইউএনসিসিটি) ১০ কোটি মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তাও করেছে সৌদি আরব। জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের উপস্থিতিতে একটি অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের সৌদি অ্যাম্বাসেডর আদেল আল জুবায়ের বলেছেন, ‘সন্ত্রাসবাদ এমন একটি অপশক্তি যেটাকে পৃথিবীর বুক থেকে নির্মূল করতে হলে আন্তর্জাতিক ঐক্য প্রয়োজন। ইউএনসিসিটি পৃথিবীর একমাত্র সংস্থা যার এই কাজে বৈধতা রয়েছে।’

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্…

গোড়ালি মচকে গেলে বরফ দেওয়া যাবে কি…

অনেকেরই খেলতে গিয়ে কিংবা অন্য কোনো কারণে পায়ের গোড়ালি মচকে যেতে পারে। তবে এ সমস্যার প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে কী করা উচিত তা নিয়ে অনেকেরই বিভ্রান্তি রয়েছে। এ ক্ষেত্রে সমাধান কী হওয়া উচিত তা জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।

বহুদিন আগে থেকেই কোথাও আঘাত লাগলে চিকিৎসকরা আরআইসিই নামে একটি বিশেষ পদ্ধতির কথা বলেন। এতে বিশ্রাম, বরফ, সংকোচন ও উঁচু করে রাখার কথা বলা হয়েছে. এটি খেলোয়াড়দের মানসম্মত চিকিৎসা পদ্ধতিতেও সংযুক্ত করা হয়েছে। যার আওতায় যেকোনো আঘাতের ক্ষেত্রে স্ট্যান্ডার্ড হিসেবে এই আরআইসিই পদ্ধতি ব্যবহৃত হয়।
তবে সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে, কোথাও আঘাত লাগলে সেখানে বরফ লাগানো ক্ষতিকর। কারণ সে স্থান সারিয়ে তুলতে বরফ বাধা দেয়। তাই প্রশ্ন উঠেছে, এখন যেকোনো আঘাতের ক্ষেত্রে বরফ লাগানো উচিত কি না।

বরফ দেওয়া উচিত কিঃ
আঘাত লাগলে বরফ দেওয়া উচিত কি না, এ প্রশ্নে দেখা গেছে, বিশেষজ্ঞরা এখনও বরফকে সমর্থন করছেন। তারা জানাচ্ছেন, এটি আঘাত লাগার পর যন্ত্রণা কমাতেও সহায়তা করে। এ বিষয়টির সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন আমেরিকান একাডেমি অব অর্থোপেডিক সার্জনস ও আমেরিকান অর্থপেডিক ফুট অ্যান্ড…

হাজার বছর আগেই মহানবী সা: কি আইএস সম্পর্কে সতর্কতা দিয়েছেন?

আইএসের তাণ্ডবে প্রকম্পিত গোটা বিশ্ব।শুক্রবার রাতে ঢাকার কূটনৈতিকপাড়া গুলশানে স্প্যানিশ রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলায় ১৭ জন বিদেশি নাগরিকসহ প্রাণ হারান ২০ জন। এর মাত্র একদিন পরেই ইরাকের রাজধানী বাগদাদে আইএসের আত্মঘাতী হামলায় প্রাণ হারান ১৬৫জন।

গত দুই বছর ধরে ক্রমাগত আইএস তাদের শক্তির জানান দিয়ে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জঙ্গিবাদ নির্মূল বাহিনীর ক্রমাগত হামলায় ইরাক এবং সিরিয়াতে এই মুহূর্তে কোণঠাসা আইএস। তবুও থেমে নেই জঙ্গি সংগঠনটি। এই প্রসঙ্গে হাজার বছর আগেই সতর্ক করেছিলেন মহানবী মুহাম্মদ (সা.)। এই প্রসঙ্গে ২০১৫ সালে একটি নিবদ্ধ প্রকাশ করেছিল হাফিংটন পোস্ট। চলমান পরিস্থিতিতে নিবদ্ধটি প্রাসঙ্গিক হওয়ায় পাঠকের জন্য পুনরায় তুলে ধরা হলো-

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক কাশিফ এন চৌধুরী হাফিংটন পোস্টে প্রকাশিত এক নিবন্ধে প্রশ্ন রেখেছেন, মুসলমানদের শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কি প্রায় দেড় হাজার বছর আগে এই আইএস-এর বিষয়েই সতর্ক করেছিলেন?
“তিনি (নবী) ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন, এমন এক সময় আসবে যখন নাম ছাড়া ইসলামের আর কিছু থাকবে না, অক্ষর ছাড়া কোরআনের কিছু থাকবে না এবং অনেক ‘মসজিদ…

হটাৎ সন্ত্রাসী আক্রমনের শিকার হলে কি করা উচিত

হটাৎ সন্ত্রাসী আক্রমনের শিকার হলে কি করা উচিত সেই সম্পর্কিত ব্রিটেন পুলিশের Stay Safe ভিডিও, বিবিসি নিউজ এবং ইয়ুথ কি আওয়াজ অবলম্বনে-
➽➽হঠাৎ করে বোমা ফাটলে বা গুলির শব্দ শুনলে, সেটাকে ইগনোর করা যাবে না। নাইট ক্লাব, কনসার্টে সন্ত্রাসীরা গুলি করলে, গুলির শব্দকে অনেকেই মিউজিকের অংশ হিসেবে ইগনোর করে। সেক্ষেত্রে আরো বেশি বিপদের সম্ভাবনা থাকে। তাই সন্দেহ হওয়ার সাথে সাথেই সেখান থেকে বের হয়ে যান। এই পৃথিবীতে আপনার একটাই মাত্র জীবন। কার দোষ, কার ভুল হলে কি হবে সেটা নিরাপদ স্থানে গিয়েও বিশ্লেষণ করা যাবে। তাই জোট দ্রুত সম্ভব নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

➽➽আজকের পর কোন রেস্টুরেন্ট, সিনেমা হল, শপিং মল, কনসার্ট, মিউজিয়াম বা স্টেডিয়ামে গেলে সেখানকার মূল আকর্ষণ দেখার আগে ফায়ার এক্সিট ভালো করে দেখেন। কোন পাশে কয়টা দরজা আছে ঠিক করে খেয়াল করবেন। সবসময় মেইন গেইট দিয়ে না ঢুকে মাঝে মধ্যে অন্য দরজা দিয়ে ঢুকে সেটার আশপাশ পরিচিত হয়ে নেন।
➽➽হামলার শিকার হয়ে গেলে বা খুব কাছাকাছি থাকলে, সেই সময় সবাই যেদিকে দৌড় দিচ্ছে সেদিকে দৌড় দিবেন। দাঁড়িয়ে থাকবেন না। কি হচ্ছে, কেন হচ্ছে, কে করছে খোঁজ নিতে গেলে আরো বেশি…