Disqus for digitalmesh

সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০১৬

নিষেধাজ্ঞা থাকলেও বিক্রি হচ্ছে ৩৪টি কোম্পানির ওষুধ

  • ৭:০৬ AM

    বাংলাদেশে ২০টি ওষুধ কোম্পানীর সমস্ত ওষুধ এবং ১৪ টি কোম্পানির তৈরি অ্যান্টি-বায়োটিক জরুরী ভিত্তিতে বাজার থেকে প্রত্যাহার করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

    নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও এসব কোম্পানির ওষুধ বাজারে বিক্রি হচ্ছে - এরকম একটি জনস্বার্থ মামলার রায়ে সরকারকে আজ এই নির্দেশ দেয় আদালত।

    মামলাটি করেছিলেন মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের আইনজীবী মনজিল মোর্শেদ ।

    বিবিসিকে তিনি বলছিলেন, বাংলাদেশে নিম্নমানের ওষুধ উৎপাদন করছে কিছু কোম্পানি, এ নিয়ে রিট পিটিশন দাখিল করলে আদালত সেই কোম্পানিগুলো বন্ধের নির্দেশ দেয়। ওসব কোম্পানির অফিস সিলগালা করার পরও তাদের সরবরাহ করা ওষুধ বাজারে রয়ে গেছে।
    নিষিদ্ধ এসব ওষুধ এবং অ্যান্টিবায়োটিক স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

    সংসদের নির্দেশে গঠিত যে বিশেষজ্ঞ কমিটি ঐ ২০ টি ওষুধ কোম্পানি বন্ধ এবং ১৫ টি কোম্পানির অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করেছিলো তার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওষুধ প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক আবম ফারুক।

    তিনি জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া মানের নিরিখে এই কমিটি দেশের সমস্ত ওষুধ কোম্পানি পরিদর্শন করে তাদের সুপারিশ দিয়েছিলেন।
    আধুনিক হোমিওপ্যাথি, ঢাকা
    ডাক্তার হাসান; ডি. এইচ. এম. এস(BHMC)
    যৌন ও স্ত্রীরোগ, লিভার, কিডনি ও পাইলসরোগ বিশেষজ্ঞ হোমিওপ্যাথ
    ১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪, বাংলাদেশ
    ফোন :- +88 01727-382671 এবং +88 01922-437435
    স্বাস্থ্য পরামর্শের জন্য যেকোন সময় নির্দিধায় এবং নিঃসংকোচে যোগাযোগ করুন।